অনুগ্রহ করে অপেক্ষা করুন...
 

যামানার লক্ষ্যস্থল ওলীআল্লাহ, যামানার ইমাম ও মুজতাহিদ, ইমামুল আ’ইম্মাহ, মুহইস সুন্নাহ, ক্বাইয়্যুমুয্ যামান, কুতুবুল আলম, হুজ্জাতুল ইসলাম, সুলত্বানুল আউলিয়া ওয়াল মাশায়িখ, ছাহিবু সুলত্বানিন নাছীর,
মাহিউল বিদয়াহ, রসূলে নুমা, গাউছুল আ’যম, সাইয়্যিদুল আউলিয়া, ইমামুল উমাম, সাইয়্যিদুল খুলাফা, আস সাফফাহ, হাবীবুল্লাহ্, আওলাদে রসূল, রাজারবাগ শরীফ-এর মুর্শিদ ক্বিবলাহ
The Daily Al Ihsan
বিশ্বের সমস্ত দেশ থেকে পঠিত আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত এর
আক্বীদায় প্রতিষ্ঠিত একমাত্র আন্তর্জাতিক ইসলামী পত্রিকা
Arabic .  বাংলা .  Urdu .  English .  Japanese .  Swedish
২৪ মাহে যিলক্বদ, ১৪৩৫ হিজরী, ২২ রবি’, ১৩৮২ শামসি
২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৪ ঈসায়ী সন, ৫ আশ্বিন, ১৪২১ ফসলী সন
ইয়াওমুস্‌ সাবতি (শনিবার)
al-ihsan al-ihsan al-ihsan
al-ihsan
মুজাদ্দিদে আ’যম আলাইহিস সালাম উনার দোয়ার বরকতে মুসলমানদেরকে জুলুম নির্যাতন করার ফলে জুলুমবাজ কাফিরদের উপর খোদায়ী গজব
  • <font class='SlideCaptionBN'>দাবানলের আগুন গিলে খাচ্ছে বনের গাছপালা। যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের ফ্রেশ পন্ডের বনে লাগা এই দাবানল ‘কিং ফায়ার’ বলে পরিচিতি পেয়েছে। </font>
  • <font class='SlideCaptionBN'>এই দাবানল ইতিমধ্যে ১৮ হাজার ৫৪৪ একরের জমি গ্রাস করেছে।</font>
  • <font class='SlideCaptionBN'>ফিলিপাইনে মেয়ন আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাতে লাভা নির্গত হওয়ায় পার্শ্ববর্তী এলাকাবাসীদের অন্যত্র সরিয়ে নেয়ার দাবি করেছে কর্তৃপক্ষ।</font>
  • <font class='SlideCaptionBN'>রাশিয়ার সাইবেরিয়া অঞ্চলে ভয়াবহ বন্যায় লণ্ডভণ্ড হয়ে গেছে বহু এলাকা।</font>
Al Baiyinaat : e Version Al Ihsan : e Version
সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ উপলক্ষে প্রকাশিত
পোষ্টার, স্ক্রিনসেভার, ওয়ালপেপার সমুহ ডাউনলোড করুন।
বিশ্বের সমস্ত দেশ ও শহর থেকে পঠিত
ইসলামী শরীয়ত সম্মত একমাত্র পত্রিকা
"দৈনিক আল ইহসান"

বিজ্ঞাপনের মুল্য তালিকা
নামাজের সময়সূচী
জেলা : ঢাকা ও পার্শ্ববর্তী এলাকা
ওয়াক্তশুরুশেষ
সাহ্‌রীর শেষ সময়০৪:২৬
ফজর০৪:৩১০৫:৪৪
ইশরাক০৬:০৮০৭:২৬
চাশত্‌০৭:২৭১০:৫২
জাওয়াল১১:৫৩যোহর নামায পড়ার পূর্ব পর্যন্ত
যোহর১১:৫৩০৪:১৬
আছর০৪:১৭০৫:৪১
মাগরিব০৬:০৪০৭:১৪
আওয়াবীনবাদ মাগরিব০৭:১৪
ইশা০৭:১৫০৪:২৭
তাহাজ্জুদ১১:১৫০৪:২৭
আগামীকাল ফজর০৪:৩২০৫:৪৪
আগামীকাল সূর্যোদয়০৫:৪৫-
আজ সূর্যোদয়০৫:৪৫-
আজ সূর্যাস্ত০৫:৫৯-
সূত্র: গবেষণা কেন্দ্র- মুহম্মদিয়া জামিয়া শরীফ, ঢাকা

 
Saieedul Aaiyad
Saieedul Aaiyad
Saieedul Aaiyad
RajarbagShareef.net
Radio 'Al-Hikmah'
Special Days in Islam
majlisu-ruiatil-hilal
International Voice Room
Noorun Alaa Noor
Donate for Daily Al Ihsan Shareef Donate for Daily Al Ihsan Shareef


» কোরআন শরীফের তরজমা ও তাফছির(তরজমায়ে মুজাদ্দিদে আজম)
» ফিক্বহুল হাদিস ওয়াল আছার
» আহ্‌লে সুন্নাত ওয়াল জামাতের আক্বীদা
» মারিফাতুছ ছাহাবা রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম
» আউলীয়া-ই-কিরাম রহমতুল্লাহী আলাইহিম
 
» আত-তাক্বউইমুশ শামসি
» ইসলামের বিশেষ দিন সমূহ
» আহ্‌কামু রমাদ্বানাল মুবারক
» আহ্‌কামুয্‌যাকাত
(যাকাতের হুকুম-আহ্‌কাম)
» বিষয় ভিত্তিক বিশেষ প্রবন্ধ
 
» মাসিক আল বাইয়্যিনাত
» ওয়াজ শরীফ
» ক্বাছীদা আনজুমান
» মক্ববুল মুনাজাত শরীফ
» প্রকাশিত কিতাব সমূহ
 
» ফতওয়া বিভাগ
» সুওয়াল জাওয়াব বিভাগ
» মাসের ফজিলত ও প্রাসঙ্গিক আলোচনা
 
» পত্রিকার মূল সংস্করণ
 
» আপনার মতামত পাঠান
» আর্কাইভ থেকে পড়ুন
 
» সুন্নতি সামগ্রী
» কবিতা
» সবুজ বাংলা ব্লগ

 
মুজাদ্দিদে আ’যম হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম-উনার ক্বওল শরীফ
মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘তোমাদের মধ্যে যারা কাফির-মুশরিক তথা বিধর্মীদের সাথে মিল মুহব্বত রাখবে, তারা সেই সমস্ত কাফির-মুশরিক তথা বিধর্মীদের অন্তর্ভুক্ত হবে।’
মহাপবিত্র কুরআন শরীফ ও মহাপবিত্র সুন্নাহ শরীফ উনাদের দৃষ্টিতে-
সরকারি-বেসরকারি যেকোনোভাবে যেকোনো মুসলমান উনাদের জন্য হিন্দুদের পূজাম-পে যাওয়া ও সাহায্য-সহযোগিতা করা, পূজার অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করা, আনন্দ উপভোগ করা, প্রসাদ খাওয়া, এমনকি পূজার মেলায় যাওয়া ও জিনিস কেনাকাটা করা সম্পূর্ণরূপে নাজায়িয ও হারাম এবং কাট্টা কুফরীর অন্তর্ভুক্ত।
স্মরণীয়, বিধর্মীরা মুসলমান উনাদের দ্বীনী অনুষ্ঠানে শরীক হলেও মুসলমান উনাদের জন্য কোনো অবস্থাতেই বিধর্মীদের কোনো অনুষ্ঠানে শরীক হওয়া জায়িয নেই।
কাজেই সমস্ত মুসলমান পুরুষ-মহিলা উনাদের জন্য ফরয হচ্ছে, উনারা যেন কোনো অবস্থাতেই পূজা সংশ্লিষ্ট কোনো অনুষ্ঠানে উপস্থিত না হয়।
আপনাদের মতামত
মুজাদ্দিদে আ’যম সাইয়্যিদুনা ইমাম রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার মকবুল মুনাজাত শরীফ উনার বেমেছাল রূহানীয়ত সমৃদ্ধ রোব মুবারক উনার ফলেই খোদায়ী গযবে পর্যুদস্ত বিশ্বের সকল কাফির-মুশরিকদের দেশ
বাংলাদেশ থেকে ভারতীয় অনুপ্রবেশকারীদের বিতাড়িত করতে হবে; এরা দেশের অগ্রগতি ও সার্বভৌমত্বের জন্য হুমকি -১

গো-পূজারী মুশরিকদের খুদকুড়া দ্বারা লালিত পালিত এক শ্রেণীর সরকারি
কর্মকর্তাদের প্রচ্ছন্ন সহযোগিতায় মিডিয়ায় চালানো হচ্ছে-
গরু কুরবানী ও গরুর গোশত বিরোধী অপপ্রচারণা। নাউযুবিল্লাহ!
কার স্বার্থে সুন্দরবন ধ্বংস করার চক্রান্তের উৎসব চলছে
শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের চরম সাম্প্রদায়িকতা ও তার চরিত্রহীনতা নিয়ে মুসলমানদের অজ্ঞতা
সম্পাদকীয়
সব প্রশংসা খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনার জন্য। সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার প্রতি অফুরন্ত দুরূদ শরীফ ও সালাম মুবারক।
সম্প্রতি বিএফইউজে এবং ডিইউজেও আদালতকে গণমাধ্যমের প্রতি ‘উদার’ ও ‘সহনশীল’ হওয়ার পরামর্শ দিয়েছে। দেখা যাচ্ছে- আদালতকেও পরামর্শ দেয়ার লোক ও বিষয় রয়েছে।
জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করতে গিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বলেছিলো, “বিচার বিভাগ স্বাধীন নয়। বিচারকদের কোনো স্বাধীনতা নেই। সরকারের পক্ষ থেকে যে নির্দেশ দেয়া হচ্ছে, তারা সেভাবে কাজ করতে বাধ্য হচ্ছে। সমস্ত বিচার ব্যবস্থা আওয়ামী লীগের হাতে শৃঙ্খলিত, নিয়ন্ত্রিত।” বেগম খালেদা জিয়া সাবেক প্রধানমন্ত্রী। তার বক্তব্য গ্রহণ করলে আদালতের অবস্থান কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়?
উল্লেখ্য, আদালতকে নিয়ে ভয় বা সন্দেহ ক্ষমতাসীন সরকার ও সংসদেরও কিন্তু কম নয়।
এরই প্রেক্ষিতে ‘সংবিধান (ষোড়শ সংশোধন) বিল-২০১৪’ গত ১৭ সেপ্টেম্বর-২০১৪ ঈসায়ী, বুধবার দিবাগত রাতে জাতীয় সংসদে পাস হয়েছে। সংবিধানের বর্তমান ৯৬ অনুচ্ছেদের এই সংশোধনীর মধ্য দিয়ে বিচারকদের অপসারণের ক্ষমতা সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিলের পরিবর্তে ফিরে এলো জাতীয় সংসদের হাতে।
পাস হওয়া বিলটিতে বলা আছে, “প্রমাণিত অসদাচরণ বা বিচার কাজে অসামর্থ্যের কারণে বিচারকের অপসারণ নির্ধারিত হবে সংসদের ভোটাভুটিতে। এমন বিধান সংযোজন করা হয়েছে সংশোধনীতে। বিলের দফা (৩)-এ বলা হয়েছে- কোনো বিচারকের অসদাচরণ বা অসামর্থ্যতা সম্পর্কে তদন্ত ও প্রমাণের পদ্ধতি সংসদ আইনের দ্বারা নিয়ন্ত্রণ করতে পারবে।
ফলতঃ প্রমাণিত হচ্ছে- বিচারকও অসদাচরণ করতে পারে অথবা সঠিক বিচার করতেও অসমর্থ্য হতে পারে। এর সাক্ষাৎ প্রমাণ হিসেবে উল্লেখ করা যায়- আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের রায়ে মৃত্যুদ- দেয়া হলেও সুপ্রীম কোর্টের আপিল বিভাগের চূড়ান্ত রায়ে একাত্তরের কুখ্যাত খুনি যুদ্ধাপরাধী ‘দেইল্যা রাজাকার’ খ্যাত জামাত নেতা খুনি সাঈদী ওরফে বাংলার ইহুদীর সাজা কমিয়ে গত বুধবার (১৭ সেপ্টেম্বর-২০১৪ ঈসায়ী) আমৃত্যু কারাদ- দিয়েছে সুপ্রীম কোর্ট।
রায়ের পর রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা মাহবুবে আলম নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেছে, আমাদের প্রত্যাশা ছিল মৃত্যুদ-। ট্রাইব্যুনাল যে রায় দিয়েছিল তা বহাল থাকবে- এটাই ছিল প্রত্যাশা। সেটা থাকেনি, আমার খুব খারাপ লাগছে।
এদিকে আপিল বিভাগের রায় ঘোষণার পর আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক তার প্রতিক্রিয়ায় বলেছে, আমি মর্মাহত। এটা আমার প্রত্যাশার মধ্যে ছিল না। দ- কমিয়ে রায় দেয়া হয়েছে।
উল্লেখ্য, ২০১০ সালের ২৯ জুন কুখ্যাত খুনি দেইল্যা রাজাকার সাঈদী ওরফে বাংলার ইহুদীকে গ্রেফতার করা হয়। ওই বছরের ২ আগস্ট তাকে মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়।
খুনি দেইল্যা রাজাকার সাঈদী ওরফে বাংলার ইহুদীর বিরুদ্ধে একাত্তরে মহান মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে তিন হাজারেরও বেশি নিরস্ত্র ব্যক্তিকে হত্যা বা হত্যায় সহযোগিতা, ৯ জনেরও বেশি নারীর সম্ভ্রমহরণ, বিভিন্ন বাড়ি ও ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে লুটপাট, ভাংচুর করার মতো ২০টি ঘটনার অভিযোগ আনা হয়েছিল আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে।
মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে ২০১৩ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি রাজাকার খুনি সাঈদীকে মৃত্যুদ- দেয় আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১। তখন আদালতে তার বিরুদ্ধে উত্থাপিত ২০টি অভিযোগের মধ্যে গণহত্যা, হত্যা, সম্ভ্রমহরণের আটটি অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হয়েছিল। এবার আপিল বিভাগেও সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হয়েছে পাঁচটি অভিযোগ। এরপরও তার সাজা কীভাবে কমতে পারে- তা নিয়েই সারা দেশ এখন নানা গুঞ্জনে উত্তাল। অভিজ্ঞ মহল মনে করছে, আপিল বিভাগের এ রায় গোটা বিচার ব্যবস্থাকেই প্রশ্নবিদ্ধ করে তুলেছে।
পর্যবেক্ষক মহলে প্রশ্নের উদ্রেক হয়েছে- তবে কী কুখ্যাত রাজাকার সাঈদীর রায় বিদেশী চাপ, টাকা বিলি এবং রাজনৈতিক আঁতাতের দ্বারা প্রভাবিত হয়েছে?
এর আগে ২০১৩ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর জামাতের আরেক নেতা আবদুল কাদের মোল্লার একই অপরাধের মামলার আপিলের রায়ে দ- বাড়িয়ে ফাঁসির আদেশ দিয়েছিলো সর্বোচ্চ আদালত, যা কার্যকর হয় ২০১৩ সালের ১২ ডিসেম্বর।
বলাবাহুল্য, কুখ্যাত যুদ্ধাপরাধী রাজাকার খুনি সাঈদীর মৃত্যুদ- স্থগিতের এ রায়ে সন্তুষ্ট হতে পারেনি ইসলামপ্রিয় দেশপ্রেমিক জনসাধারণ, মুক্তিযোদ্ধা, শহীদ পরিবারের সন্তান, সাংবাদিক, শিক্ষকসহ সব বোদ্ধা মহল। একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধের বহুমাত্রিক দায় যার, তার আমৃত্যু কারাদ- তাদের প্রত্যাশা পূরণে ব্যর্থ হয়েছে। এ রায়ের মধ্য দিয়ে ৩০ লাখ শহীদ পরিবার এবং নিহত বুদ্ধিজীবী পরিবারকেও উপহাস করা হয়েছে; অপমান করা হয়েছে এবং তাদের ন্যায়বিচার থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে। পাশাপাশি বিশিষ্টজনরা রাষ্ট্রপক্ষের সমালোচনা করে বলেছে, যুদ্ধাপরাধীদের বিচারপ্রক্রিয়া নিয়ে নানা মহলের সাথে আঁতাত ও আপসের বিষয়ে জনমনে যে সন্দেহ ও উৎকণ্ঠা দীর্ঘদিন ধরে দানা বাঁধছে, এ রায়ের মাধ্যমে তা সত্য প্রমাণিত হয়েছে।
রাজনৈতিক মহলে জোর গুঞ্জন উঠেছে সরকার মওদুদীবাদী জামাতের সঙ্গে গোপন সমঝোতা করেছে। গদি নিরাপদ রাখার জন্য তারা যুদ্ধাপরাধীদের সঙ্গে আঁতাতের কৌশল নিয়েছে। রায়-পরবর্তী জামাত-শিবিরের আচরণেও লক্ষ্য করা গেছে অতিরিক্ত অহিংস ভাব, যা গুঞ্জনকে আরো জোরালো ভিত্তি দিচ্ছে বলে মনে করে অভিজ্ঞমহল।
এদিকে রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা বলেছে এ রায় রিভিউর কোনো সুযোগ নেই। কিন্তু আমরা মনে করি- সংবিধানের ১০৫ অনুচ্ছেদে আপিল বিভাগকে তার ঘোষিত রায় বা আদেশ পুনর্বিবেচনার ক্ষমতা দেয়া হয়েছে। সংবিধানের ৪৭ অনুচ্ছেদে আসামির মৌলিক অধিকার খর্ব করা হলেও আপিল বিভাগের অধিকার কখনোই খর্ব করা হয়নি। আপিল বিভাগ যদি মনে করে তার রায়ে কোনো মারাত্মক ত্রুটি বা আইনের ভুল ব্যাখ্যা করা হয়েছে, তাহলে তারা তাদের নিজেদের রায় সংশোধনের অধিকার রাখে। এটি স্বেচ্ছাপ্রণোদিত হয়েও করতে পারে আবার কারো আবেদনের মাধ্যমে বিষয়টি যদি তাদের নজরে আসে সেক্ষেত্রেও তারা আগের রায় পুনর্বিবেচনা করতে পারে।
সেক্ষেত্রে আমরা সরকার ও সংশ্লিষ্ট মহলের প্রতি জোর দাবি জানাচ্ছি- তারা যেন রিভিউর মাধ্যমে অবিলম্বে কুখ্যাত যুদ্ধাপরাধী রাজাকার খুনি সাঈদী ওরফে বাংলার ইহুদীর বর্তমান রায় পাল্টিয়ে তার উপযুক্ত শাস্তি তথা মৃত্যুদ- রায় প্রদান ও তা বাস্তবায়ন করে।
মূলতঃ এসব উপলব্ধি ও অনুভূতি আসে ইসলামী জজবা ও প্রজ্ঞা থেকে। আর তার জন্য চাই নেক ছোহবত তথা ফয়েজ তাওয়াজ্জুহ। যামানার ইমাম ও মুজতাহিদ, যামানার মুজাদ্দিদ, মুজাদ্দিদে আ’যম, উনার নেক ছোহবতেই কেবলমাত্র সে মহান ও অমূল্য নিয়ামত হাছিল সম্ভব। খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি আমাদেরকে তা নছীব করুন। (আমীন)
দেশের খবর
ভারতের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদ প্রশ্রয়ের অভিযোগ তুলবে বাংলাদেশ
হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে নিয়ে ফেসবুকে কটূক্তি: ১ জনের মৃত্যুদণ্ড
সরকার শিক্ষাব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দিয়েছে
‘বিচার বিভাগের উপর একটি ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে’
‘বিএনপি ক্ষমতায় এলে অভিশংসন বাতিল’
সরকার ব্যাংক ও শেয়ার বাজার লুটপাটে দেশকে পঙ্গু করেছে - দুদু
জেএমবির ৭ সদস্যকে দুদিনের রিমান্ড
সংবাদ সম্মেলনে ডিবি
কথিত জিহাদে যেতে আইএস’র সঙ্গে জেএমবির যোগাযোগ
সবধরনের দারিদ্র্যতার অবসান দাবি
২৮ সেপ্টেম্বরের মধ্যে গার্মেন্টস শ্রমিকদের বেতন-ভাতা পরিশোধের দাবি
মুক্তিপণের দাবিতে বঙ্গোপসাগরে চার ট্রলারসহ ৫০ জেলে অপহরণ
২০১৮ সালে মধ্যেই পদ্মা সেতুর কাজ শেষ হবে - প্রধানমন্ত্রী
পদ্মা সেতু করা সম্ভব হবে না -খন্দকার মাহবুব
সুখবরেও স্বস্তি নেই
সাঈদীর রায়ে নীরবতাই খালেদার সমবেদনা: ইনু
সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী নিয়ে বিতর্ক নয় : নাসিম
এ কে খন্দকার তার মুখোশ উন্মোচন করেছেন : মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী
তিস্তা নিয়ে ফলপ্রসূ আলোচনা -পররাষ্ট্রমন্ত্রী
নিরাপত্তাহীনতায় পাকিস্তান হাইকমিশন
ঢাবিতে ভর্তি জালিয়াতি, লাখ টাকায় চুক্তি
নতুন প্রযুক্তি ব্যবহারে উচ্চমূল্যের ফসল উৎপাদন
অবিশ্বাসে বন্দি জামাত-বিএনপি
প্রবাসে বাংলাদেশী শ্রমিকদের মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছে
পেঁয়াজ ও মসলার দাম চড়া
ঘুষ কেলেঙ্কারি
গ্ল্যাক্সোস্মিথের অর্থদণ্ড, কর্মকর্তাদের কারাদণ্ড
ভুয়া সনদ তৈরির সরঞ্জামসহ জুরাইনে আটক ১
বিএনপিকে বন্ধুহীন করতে জামাতকে কাছে টানছে আ’লীগ -সেলিম
গণতন্ত্র এখন প্রধানমন্ত্রীর আঁচলে বন্দি -জাসদ
হিলি সীমান্তে ফেনসিডিলসহ যুবক আটক
দেশবাসী অবৈধ সরকারের দুঃশাসন থেকে মুক্তি চায় -মির্জা ফখরুল
বাগেরহাটের কচুয়ায় ‘আলোড়ন’ ধানের আলোড়ন
ফলন ভালো হলেও পাটচাষীদের মুখে হাসি নেই
দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টি হতে পারে
মেক্সিকোর হারিকেন কবলিত অঞ্চলে ব্যাপক লুটতরাজ
হাজীগঞ্জে এনজিও’র কিস্তির টাকা পরিশোধে ব্যর্থ হয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা
সাভারে গ্রামবাসীর সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ, অস্ত্র উদ্ধার
Anjuman-e Al Baiyinaat, Sweden
কবিতা






For the satisfaction of Mamduh Hazrat Murshid Qeebla Alaihis Salam
Site designed & developed by Muhammad Shohel Iqbal