al-ihsan.net
mob.al-ihsan.net
বাংলা | English
যামানার লক্ষ্যস্থল ওলীআল্লাহ, যামানার ইমাম ও মুজতাহিদ, ইমামুল আ’ইম্মাহ, মুহ্‌ইস সুন্নাহ্‌, ক্বাইয়্যুমুয্‌ যামান, কুতুবুল আলম, মুজাদ্দিদে আ’যম,
সুলতানুল ওয়ায়েজীন, গাউছুল আ’যম, সাইয়্যিদুল আউলিয়া, হাবীবুল্লাহ্‌, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা ইমাম রাজারবাগ শরীফের
মামদুহ্‌ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম-এর দৈনিক আল ইহসানে প্রধান শিরোনামে প্রকাশিত ক্বওল শরীফ সমূহ।

  অনুসন্ধান: 
৬ ফেব্রুয়ারী, ২০১৬
মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘কোনো মু’মিন ও মু’মিনা উনাদের জন্য জায়িয হবে না যে, মহান আল্লাহ পাক তিনি ও উনার রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনারা যে ফায়ছালা মুবারক দিয়েছেন সে ফায়ছালা মুবারক উনার বিপরীত মত পেশ করা। যে বিপরীত মত পেশ করবে সে প্রকাশ্য গুমরাহে গুমরাহ হবে।’

সম্মানিত ইসলামী শরীয়ত উনার ফায়ছালা হলো- প্রতিটি আরবী মাসেই চাঁদ তালাশ করা ওয়াজিবে ক্বিফায়া।

যারা প্রতিটি আরবী মাসের ২৯ তারিখ চাঁদ তালাশ না করে মনগড়াভাবে মাস শুরু করে, তারা প্রকাশ্য গুমরাহে গুমরাহ।

বাংলাদেশ পবিত্র জুমাদাল ঊলা মাস উনার চাঁদ তালাশ করবে ২৯ রবীউছ ছানী ১৪৩৭ হিজরী, ১১ তাসি’ ১৩৮৩ শামসী, ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ ঈসায়ী ইয়াওমুছ ছুলাছা দিবাগত সন্ধ্যায়।

আকাশ যথেষ্ট পরিষ্কার থাকলে সেদিন চাঁদ দেখা যাবার কিছুটা সম্ভাবনা রয়েছে। তবে কোনো কারণে চাঁদ দেখা না গেলে মাস ত্রিশ দিনে পূর্ণ করা সম্মানিত শরীয়ত উনার নির্দেশ।



৫ ফেব্রুয়ারী, ২০১৬
মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র সূরা বনী ইসরাইল শরীফ’ উনার ৬৪নং পবিত্র আয়াত শরীফ উনার মধ্যে ইবলিস শয়তানের আওয়াজ বলতে ‘গান ও বাদ্য’কে বুঝিয়েছেন।

বর্ণিত রয়েছে, ইবলিস শয়তানই সর্বপ্রথম বিলাপ করেছে এবং গান গেয়েছে। নাউযুবিল্লাহ!

গান-বাজনা করা ও শ্রবণ করা কবীরা গুনাহ। গান-বাজনার আসরে বসা ফাসিক্বী এবং গান-বাজনার স্বাদ গ্রহণ করা কুফরী।

মূলত, গায়ক-গায়িকারা ও বাদক-বাদিকারা ইবলিস শয়তানের অনুচর।

গান-বাজনা করা ও শ্রবণ করা সম্পূর্ণরূপে হারাম। আর হারামকে হালাল জানা কুফরী।

কাজেই কেউ কোনো হারামকে হালাল বা ভালো জেনে করলে সে মুসলমান থেকে খারিজ হয়ে মুরতাদ বা কাফির হয়ে যাবে।



৪ ফেব্রুয়ারী, ২০১৬
নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘ইলম হচ্ছে আমল উনার ইমাম।’

সম্মানিত ইসলামী শরীয়ত উনার মধ্যে কোন্ বিষয়গুলো হালাল এবং কোন্ বিষয়গুলো হারাম- এ সম্পর্কিত ইলম বা শিক্ষা না থাকার কারণেই মুসলমান উনারা হালাল কাজে মশগুল না থেকে হারাম কাজে মশগুল থাকছে। নাউযুবিল্লাহ!

তাই ৯৮ ভাগ মুসলমান অধ্যুষিত ও রাষ্ট্র দ্বীন ইসলাম উনার দেশের সরকারের জন্য ফরয হচ্ছে-

বাংলাদেশের সমস্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সব সিলেবাসে হালাল-হারাম সম্পর্কিত বিষয়গুলি ইলমসহ অবশ্যই অন্তর্ভুক্ত করা।

তাহলে সকল মুসলমানগণ উনারা হারাম থেকে বিরত থেকে হালাল-এর মধ্যে মশগুল থাকতে পারবেন এবং নিজেদের ঈমান ও আমল হিফাযত করতে পারবেন।



৩ ফেব্রুয়ারী, ২০১৬
মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘হে ঈমানদারগণ! তোমরা যমীনে যা হালাল তা ভক্ষণ কর।’

সম্মানিত ইসলামী শরীয়ত উনার দৃষ্টিতে হালাল কামাই করা এবং হালাল ও পবিত্র খাদ্য খাওয়া ফরয।

গাউছুল আ’যম হযরত বড়পীর ছাহেব রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার সম্মানিত পিতা হযরত সাইয়্যিদ আবূ ছালেহ মূসা জঙ্গী দোস্ত রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি হালাল রিযিককে গুরুত্ব দেয়া ও হালাল খাদ্য খাওয়ার কারণেই

মহান আল্লাহ পাক তিনি উনার ঘরে গাউছুল আ’যম সাইয়্যিদুল আউলিয়া হযরত বড়পীর ছাহেব রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার মতো ওলীআল্লাহ উনাকে পাঠিয়েছেন।

যার থেকে সকলকেই ইবরত-নছীহত হাছিল করতে হবে।

অর্থাৎ সকলকেই হালাল কামাই করতে হবে এবং হালাল ও পবিত্র খাদ্য খেতে হবে।



২ ফেব্রুয়ারী, ২০১৬
নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “তোমরা দোলনা থেকে কবর পর্যন্ত দ্বীনী ইলম অন্বেষণ করো।”

কাজেই পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র সুন্নাহ শরীফ উনাদের আলোকেই ৯৮ ভাগ মুসলমান অধ্যুষিত ও রাষ্ট্রদ্বীন ইসলাম উনার এদেশের শিক্ষানীতি ও সিলেবাস প্রণয়ন করতে হবে।

বর্তমান সিলেবাসের প্রায় প্রতিটি বই অসংখ্য ভুল ও কুফরীমূলক বক্তব্যে পরিপূর্ণ। নাউযুবিল্লাহ!

তাই এদেশের ৯৮ ভাগ অধিবাসী মুসলমান উনারা বর্তমান কুফরী শিক্ষানীতি ও সিলেবাসকে কখনোই গ্রহণ করতে পারে না।

কারণ তা পাঠ করলে কোনো মুসলমানই মুসলমান হিসেবে থাকতে পারবে না; বরং কাফিরে পরিণত হয়ে যাবে। নাউযুবিল্লাহ!

প্রকৃতপক্ষে বর্তমান শিক্ষানীতি ও সিলেবাস সম্মানিত দ্বীন ইসলাম ও মুসলমান উনাদের বিরুদ্ধে গভীর ও সূক্ষ্ম ষড়যন্ত্র।

অতএব, এদেশের ৯৮ ভাগ অধিবাসী মুসলমান উনাদের জন্য এবং সরকারের জন্য ফরয হচ্ছে- অতিসত্বর বর্তমান কুফরী শিক্ষানীতি ও কুফরী সম্বলিত গুমরাহীমূলক সিলেবাস বাতিল ঘোষণা করে পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র সুন্নাহ শরীফ উনাদের সম্মত শিক্ষানীতি ও সিলেবাস প্রণয়ন করা।





      [(৩০০২ - ২৯৯৮) ৩০০২]   অপেক্ষাকৃত পুরাতন ›   একেবারে পুরাতন » 





সম্পাদক: আল্লামা মুহম্মদ মাহবুব আলম
অফিস: ৫, আউটার সারকুলার রোড, রাজারবাগ, ঢাকা -১২১৭, বাংলাদেশ।
ফোন: +৮৮-০১৭১৬৮৮১৫৫১, +৮৮-০২-৮৩১৭০১৯, ৮৩১৪৮৪৮, ৮৩১৬৯৫৮; ফ্যাক্স: ৯৩৩৮৭৮৮
ই-মেইল: editor@al-ihsan.net, dailyalihsan@gmail.com

For the satisfaction of Mamduh Hazrat Murshid Qeebla Mudda Jilluhul Aali
Site designed & developed by Muhammad Shohel Iqbal