অনুগ্রহ করে অপেক্ষা করুন...
 

যামানার লক্ষ্যস্থল ওলীআল্লাহ, যামানার ইমাম ও মুজতাহিদ, ইমামুল আ’ইম্মাহ, মুহইস সুন্নাহ, ক্বাইয়্যুমুয্ যামান, কুতুবুল আলম, হুজ্জাতুল ইসলাম, সুলত্বানুল আউলিয়া ওয়াল মাশায়িখ, ছাহিবু সুলত্বানিন নাছীর,
মাহিউল বিদয়াহ, রসূলে নুমা, গাউছুল আ’যম, সাইয়্যিদুল আউলিয়া, ইমামুল উমাম, সাইয়্যিদুল খুলাফা, আস সাফফাহ, হাবীবুল্লাহ্, আওলাদে রসূল, রাজারবাগ শরীফ-এর মুর্শিদ ক্বিবলাহ
The Daily Al Ihsan
বিশ্বের সমস্ত দেশ থেকে পঠিত আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত এর
আক্বীদায় প্রতিষ্ঠিত একমাত্র আন্তর্জাতিক ইসলামী পত্রিকা
Arabic .  বাংলা .  Urdu .  English .  Japanese .  Swedish
২৭ মাহে যিলহজ্জ, ১৪৩৫ হিজরী, ২৪ খমিছ, ১৩৮২ শামসি
২৩ অক্টোবর, ২০১৪ ঈসায়ী সন, ৮ কার্তিক, ১৪২১ ফসলী সন
ইয়াওমুল খামীস (বৃহস্পতিবার)
al-ihsan al-ihsan al-ihsan
al-ihsan
মুজাদ্দিদে আ’যম আলাইহিস সালাম উনার দোয়ার বরকতে মুসলমানদেরকে জুলুম নির্যাতন করার ফলে জুলুমবাজ কাফিরদের উপর খোদায়ী গজব
  • <font class='SlideCaptionBN'>ঘণ্টায় ১০৮ মাইল বেগে ব্রিটেনে আঘাত হেনেছে ঘূর্ণিঝড় গঞ্জালো। ছবিতে গঞ্জালো আঘাতে ক্ষয়ক্ষতির ছবি দেখা যাচ্ছে।</font>
  • <font class='SlideCaptionBN'>ক্যানারি দ্বীপপুঞ্জে ভয়াবহ বন্যায় ডুবে গেছে।</font>
  • <font class='SlideCaptionBN'>ঘণ্টায় ১০৮ মাইল বেগে ব্রিটেনে আঘাত হেনেছে ঘূর্ণিঝড় গঞ্জালো। ছবিতে গঞ্জালো আঘাতে ক্ষয়ক্ষতির ছবি দেখা যাচ্ছে।</font>
  • <font class='SlideCaptionBN'>ক্যানারি দ্বীপপুঞ্জে ভয়াবহ বন্যায় ডুবে গেছে।</font>
  • <font class='SlideCaptionBN'>যুক্তরাষ্ট্রে শিক্ষার্থীর সংখ্যা রেকর্ড পরিমাণে বৃদ্ধি পেয়েছে। ২০১২-১৩ মেয়াদে গৃহহীন শিক্ষার্থীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে যা আগের সব রেকর্ড ভেঙে দিয়েছে।</font>
  • <font class='SlideCaptionBN'>ঘণ্টায় ১০৮ মাইল বেগে ব্রিটেনে আঘাত হেনেছে ঘূর্ণিঝড় গঞ্জালো। ছবিতে গঞ্জালো আঘাতে ক্ষয়ক্ষতির ছবি দেখা যাচ্ছে।</font>
  • <font class='SlideCaptionBN'>ক্যানারি দ্বীপপুঞ্জে ভয়াবহ বন্যায় ডুবে গেছে।</font>
Al Baiyinaat : e Version Al Ihsan : e Version
সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ উপলক্ষে প্রকাশিত
পোষ্টার, স্ক্রিনসেভার, ওয়ালপেপার সমুহ ডাউনলোড করুন।
বিশ্বের সমস্ত দেশ ও শহর থেকে পঠিত
ইসলামী শরীয়ত সম্মত একমাত্র পত্রিকা
"দৈনিক আল ইহসান"

বিজ্ঞাপনের মুল্য তালিকা
নামাজের সময়সূচী
জেলা : ঢাকা ও পার্শ্ববর্তী এলাকা
ওয়াক্তশুরুশেষ
সাহ্‌রীর শেষ সময়০৪:৩৯
ফজর০৪:৪৪০৫:৫৭
ইশরাক০৬:২১০৭:৩৪
চাশত্‌০৭:৩৫১০:৪৩
জাওয়াল১১:৪৪যোহর নামায পড়ার পূর্ব পর্যন্ত
যোহর১১:৪৪০৩:৫০
আছর০৩:৫১০৫:১০
মাগরিব০৫:৩৩০৬:৪৩
আওয়াবীনবাদ মাগরিব০৬:৪৩
ইশা০৬:৪৪০৪:৩৯
তাহাজ্জুদ১১:০৬০৪:৩৯
আগামীকাল ফজর০৪:৪৪০৫:৫৭
আগামীকাল সূর্যোদয়০৫:৫৮-
আজ সূর্যোদয়০৫:৫৮-
আজ সূর্যাস্ত০৫:২৮-
সূত্র: গবেষণা কেন্দ্র- মুহম্মদিয়া জামিয়া শরীফ, ঢাকা

 
Saieedul Aaiyad
Saieedul Aaiyad
Saieedul Aaiyad
RajarbagShareef.net
Radio 'Al-Hikmah'
Special Days in Islam
majlisu-ruiatil-hilal
International Voice Room
Noorun Alaa Noor
Donate for Daily Al Ihsan Shareef Donate for Daily Al Ihsan Shareef


» কোরআন শরীফের তরজমা ও তাফছির(তরজমায়ে মুজাদ্দিদে আজম)
» ফিক্বহুল হাদিস ওয়াল আছার
» আহ্‌লে সুন্নাত ওয়াল জামাতের আক্বীদা
» মারিফাতুছ ছাহাবা রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম
» আউলীয়া-ই-কিরাম রহমতুল্লাহী আলাইহিম
 
» আত-তাক্বউইমুশ শামসি
» ইসলামের বিশেষ দিন সমূহ
» আহ্‌কামু রমাদ্বানাল মুবারক
» আহ্‌কামুয্‌যাকাত
(যাকাতের হুকুম-আহ্‌কাম)
» বিষয় ভিত্তিক বিশেষ প্রবন্ধ
 
» মাসিক আল বাইয়্যিনাত
» ওয়াজ শরীফ
» ক্বাছীদা আনজুমান
» মক্ববুল মুনাজাত শরীফ
» প্রকাশিত কিতাব সমূহ
 
» ফতওয়া বিভাগ
» সুওয়াল জাওয়াব বিভাগ
» মাসের ফজিলত ও প্রাসঙ্গিক আলোচনা
 
» পত্রিকার মূল সংস্করণ
 
» আপনার মতামত পাঠান
» আর্কাইভ থেকে পড়ুন
 
» সুন্নতি সামগ্রী
» কবিতা
» সবুজ বাংলা ব্লগ

 
মুজাদ্দিদে আ’যম হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম-উনার ক্বওল শরীফ
মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘মহান আল্লাহ পাক তিনি হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনাদের প্রতি সন্তুষ্ট।’
আখিরী রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘আমার পর যদি কেউ নবী হতেন, তবে নবী হতেন হযরত উমর ইবনুল খত্তাব আলাইহিস সালাম।’
আজ সুমহান বরকতময় ২৭শে পবিত্র যিলহজ্জ শরীফ-
খলীফায়ে ছানী, ফারূক্বে আ’যম, আমীরুল মু’মিনীন সাইয়্যিদুনা হযরত উমর ইবনুল খত্তাব আলাইহিস সালাম উনার পবিত্র বিছাল শরীফ অর্থাৎ পবিত্র শাহাদাত শরীফ দিবস।
তাই প্রত্যেক মুসলমান পুরুষ-মহিলা সকলের জন্য দায়িত্ব ও কর্তব্য হচ্ছে, উনার পবিত্র বিছাল শরীফ বা পবিত্র শাহাদাত শরীফ দিবস উপলক্ষে পবিত্র মীলাদ শরীফ, পবিত্র ক্বিয়াম শরীফ, পবিত্র সাওয়ানেহে উমরী মুবারক এবং পবিত্র ঈছালে ছওয়াব উনার মাহফিল করা।
আর সরকারের জন্য দায়িত্ব ও কর্তব্য হচ্ছে- উনার পবিত্র সাওয়ানেহে উমরী মুবারক প্রত্যেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সিলেবাসে অন্তর্ভুক্ত করা।
উনার পবিত্র বিছাল শরীফ অর্থাৎ পবিত্র শাহাদাত শরীফ দিবস উদযাপনে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা ও এ উপলক্ষে ছুটি ঘোষণা করা।
ইসলামী শিক্ষা
সুমহান ২৭শে যিলহজ্জ শরীফ
আমীরুল মু’মিনীন, খলীফাতুল মুসলিমীন, সাইয়্যিদুনা হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম উনার মহানুভবতা ও ওয়াদা পালনের অভূতপূর্ব দৃষ্টান্ত
আমীরুল মু’মিনীন, খলীফাতুল মুসলিমীন সাইয়্যিদুনা হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম উনার পবিত্র কারামত শরীফ
‘আয় আল্লাহ পাক, আপনি খাছ করে সম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনাকে শক্তিশালী করুন সাইয়্যিদুনা ফারূক্বে আ’যম সাইয়্যিদুনা হযরত উমর ইবনুল খত্তাব আলাইহিস সালাম উনার মাধ্যমে!’
নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার ফায়ছালার প্রতি দৃঢ়চিত্ত থাকার হাক্বীক্বী দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন সাইয়্যিদুনা হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম তিনি
খলীফায়ে ছানী আমীরুল মু’মিনীন, খলীফাতুল মুসলিমীন সাইয়্যিদুনা হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম উনার সংক্ষিপ্ত সাওয়ানেহে উমরী মুবারক (৪)
আপনাদের মতামত
আমীরুল মু’মিনীন, খলীফাতুল মুসলিমীন সাইয়্যিদুনা হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম উনার খিলাফতকালীন স্বাস্থ্য ব্যবস্থা
আখিরী রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পরে নবী-রসূল আগমন করার ধারাবাহিকতা জারি থাকলে নবী-রসূল হিসেবে আগমন করতেন আমীরুল মু’মিনীন, খলীফাতুল মুসলিমীন, সাইয়্যিদুনা হযরত উমর ইবনুল খত্তাব আলাইহিস সালাম। সুবহানাল্লাহ!
মহান আল্লাহ পাক উনার প্রতি খলীফায়ে ছানী, আমীরুল মু’মিনীন, খলীফাতুল মুসলিমীন সাইয়্যিদুনা হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম উনার বেমেছাল আনুগত্যতা
পবিত্র পর্দা পালন ও পবিত্র সুন্নত উনার অনুসরণে খলীফায়ে ছানী, আমিরুল মু’মিনীন, খলীফাতুল মুসলিমীন, সাইয়্যিদুনা হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম
খলীফায়ে ছানী আমীরুল মু’মিনীন, খলীফাতুল মুসলিমীন সাইয়্যিদুনা হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম উনার বিনয়-বিনম্রতা
সম্পাদকীয়

সমস্ত প্রশংসা মুবারক খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনার জন্য; যিনি সকল সার্বভৌম ক্ষমতার মালিক। সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নবী আলাইহিমুস সালাম উনাদের নবী, রসূল আলাইহিমুস সালাম উনাদের রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার প্রতি অফুরন্ত পবিত্র দুরূদ শরীফ ও সালাম মুবারক।
উম্মুল মু’মিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত ছিদ্দীক্বা আলাইহাস সালাম উনার হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমার পিতা আফদ্বালুন নাছ বা’দাল আম্বিয়া হযরত ছিদ্দীক্বে আকবর আলাইহিস সালাম উনার নিকট লোকেরা এসে বললো, আপনি সাইয়্যিদুনা হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম উনাকে আপনার স্থলাভিষিক্ত করেছেন। আপনি মহান আল্লাহ পাক উনার কাছে এ বিষয়ে জিজ্ঞাসিত হলে কি জবাব দিবেন? তিনি ইরশাদ মুবারক করলেন, তোমরা আমাকে বসাও। আমি তখন মহান আল্লাহ পাক উনাকে বলবো, আমি উম্মাহর জন্য তাদের মধ্যে যিনি সর্বত্তোম ব্যক্তি উনাকে খিলাফত মুবারক দিয়ে এসেছি। সুবহানাল্লাহ! (তারীখু দিমাশক্ব)
আমীরুল মু’মিনীন, খলীফাতু রসূলিল্লাহ সাইয়্যিদুনা হযরত আবু বকর ছিদ্দীক্ব আলাইহিস সালাম উনার ক্বওল শরীফ মুবারক অক্ষরে অক্ষরে সত্য ছিল এবং বাস্তবেও তাই প্রকাশিত ও প্রতিভাত হয়েছিল।
খলীফায়ে ছানী, আমীরুল মু’মিনীন, খলীফাতুল মুসলিমীন সাইয়্যিদুনা হযরত ছিদ্দীক্বে আকবর আলাইহিস সালাম উনার পবিত্র বিছাল শরীফ গ্রহণের পর হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম তিনি হিজরী ১৩ সালের ২২শে পবিত্র জুমাদাল উখরা শরীফ সম্মানিত খিলাফত উনার দায়িত্ব গ্রহণ করেন। উনার খিলাফতকাল সর্বমোট ১০ বছর ৬ মাস স্থায়ী হয়।
আমীরুল মু’মিনীন, খলীফাতুল মুসলিমীন সাইয়্যিদুনা হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম তিনি শাসনব্যবস্থাকে সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য বিশাল মুসলিম সাম্রাজ্যকে ১৪টি প্রদেশে বিভক্ত করেন। যথা: পবিত্র মক্কা শরীফ, পবিত্র মদীনা শরীফ, সিরিয়া, আলজেরিয়া, বসরা, কূফা, মিসর, প্যালেস্টাইন, ফারস, কিরমান, মাকরান, খোরাসান, সিজিস্তান ও আজরবাইজান। শাসনব্যবস্থার বিকেন্দ্রীকরণের ফলে দূরবর্তী অঞ্চলেও সুষ্ঠুভাবে ইসলামী শাসনব্যবস্থার নিশ্চয়তা প্রতিষ্ঠিত হয়। প্রতিটি প্রদেশকে জেলা ও মহকুমায় বিভক্ত করা হয়। প্রদেশের শাসনকর্তাকে ওয়ালী বা আমীরে শো’বা এবং জেলার শাসনকর্তাকে আমীন বলা হতো।
আমীরুল মু’মিনীন, খলীফাতুল মুসলিমীন সাইয়্যিদুনা হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম তিনি মজলিসে শূরা বা উপদেষ্টা পরিষদের সাথে পরামর্শ করে সর্বোচ্চ ইসলামী আদর্শের ভিত্তিতে প্রদেশের শাসনকর্তা ও জেলার শাসনকর্তা নিয়োগ করতেন। উনারা তাদের কার্যের জন্য আমিরুল মু’মিনীন উনার নিকট দায়ী থাকতেন।
আমীরুল মু’মিনীন, খলীফাতুল মুসলিমীন সাইয়্যিদুনা হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম তিনি সামরিক বাহিনীকে শক্তিশালী ও সুসংহত করার জন্য ৯টি সামরিক বিভাগ বা জুনদ বা ক্যান্টমেন্ট প্রতিষ্ঠা করেন। যথা- পবিত্র মদীনা শরীফ, কূফা, বসরা, ফুসতাত, মিসর দামেস্ক, হিমস, প্যালেস্টাইন ও মসুল।
আমীরুল মু’মিনীন, খলীফাতুল মুসলিমীন সাইয়্যিদুনা হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম তিনি বিচার বিভাগের গঠন এবং উন্নতি বহুলাংশে প্রশাসনিক মেধার জন্য সম্ভবপর করেছিলেন। বিচারব্যবস্থা সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য তিনি প্রত্যেক প্রদেশে একজন প্রধান ক্বাযী (ক্বাযী-উল কুযাত বা প্রধান বিচারক) এবং প্রত্যেক জেলায় একজন ক্বাযী নিযুক্ত করেন।
অপরাধমূলক কার্যকলাপ রোধ করে শান্তি ও নিরাপত্তা বজায় রাখার জন্য আমীরুল মু’মিনীন, খলীফাতুল মুসলিমীন সাইয়্যিদুনা হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম তিনি সর্বপ্রথম একটি সুগঠিত পুলিশ বাহিনী প্রতিষ্ঠা করেন। পুলিশ প্রধানের নাম রেখেছিলেন ছাহেব উল আহদাত।
আমীরুল মু’মিনীন, খলীফাতুল মুসলিমীন সাইয়্যিদুনা হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম উনার শাসনের অন্যতম কৃতিত্ব ছিল কারাগার প্রতিষ্ঠা। কোনোও অপরাধী প্রাপ্যের অতিরিক্ত কষ্ট যাতে পেতে না হয় তার সব ব্যবস্থা রেখেছিলেন।
আমীরুল মু’মিনীন, খলীফাতুল মুসলিমীন সাইয়্যিদুনা হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম উনার শাসন ব্যবস্থাকে সম্মানিত ইসলামী আদর্শযুক্ত, শত্রুমুক্ত, দুর্নীতিমুক্ত, সঠিক বিচার-ব্যবস্থার জন্য তিনি গোয়েন্দা বিভাগ প্রবর্তন করেন।
খিলাফতের আয়-ব্যয়ের হিসেব ঠিক রাখার জন্য তিনি ‘দিওয়ান’ নামে একটি রাজস্ব বিভাগ প্রবর্তন করেন। খিলাফতের রাজস^ উৎস ছিল পবিত্র যাকাত, খারাজ, জিজিয়া, ফসলের উশর, আলফে, গনিমাহ, আল উশর ও হিমা।
আমীরুল মু’মিনীন, খলীফাতুল মুসলিমীন সাইয়্যিদুনা হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম তিনি কৃষির উন্নতির জন্য অগ্রিম ঋণ দেয়ার প্রথা প্রবর্তন করেন। তিনি কৃষিভিত্তিক অর্থনীতির জন্য অগ্রিম খিলাফতী ঋণ দেয়ার প্রথা প্রবর্তন করেন। তিনি কৃষিকাজ, ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসারের জন্য আরব ও মিসরের মধ্যে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি করেন এবং বাণিজ্য শুল্ক লাঘব করেন।
আমীরুল মু’মিনীন, খলীফাতুল মুসলিমীন সাইয়্যিদুনা হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম তিনি জাতীয় অর্থের সুষ্ঠু বণ্টনের জন্য সর্বপ্রথম লোকগণনা বা আদমশুমারি ও জরিপের ব্যবস্থা গ্রহণ করেন।
জনহিতকর কার্যাবলী ছিল আমীরুল মু’মিনীন, খলীফাতুল মুসলিমীন সাইয়্যিদুনা হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম উনার শাসনব্যবস্থার একটি প্রধান বৈশিষ্ট্য। উনার শাসনামলে অসংখ্য মসজিদ, ইলম চর্চার কেন্দ্র তথা মাদরাসা-মক্তব, লঙ্গরখানা, হাম্মামখানা, খাল, রাস্তা, সেতু, দুর্গ, হাসপাতাল প্রভৃতি জনকল্যাণমূলক ও প্রশাসনিক ভবন বিভিন্ন জেলায় জেলায় এমনকি মহল্লায় মহল্লায় গড়ে উঠে।
জনগণের কল্যাণে তিনি সর্বদাই নিয়োজিত থাকতেন। জনসাধারণের অবস্থা চাক্ষুস দেখার জন্য তিনি পবিত্র মদীনা শরীফ উনার অলিতে গলিতে রাতের আঁধারে ঘুরে বেড়াতেন এবং অসহায় মানুষের কাছে নিজ হাতে সাহায্য পৌঁছে দিতেন। পৃথিবীর ইতিহাসে এর কোনোও নজির নেই। কিন্তু তারপরেও জনগণের কল্যাণ সাধনে তিনি যেন নিজের উপর নিজে সন্তুষ্ট ছিলেন না। সবসময়ই তিনি চিন্তা করতেন এর চেয়েও বেশি কি করে মুসলমানদের কল্যাণ করা যায়।
প্রসঙ্গত, আমর ইবনু মায়মূন রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি আমীরুল মু’মিনীন, খলীফাতুল মুসলিমীন সাইয়্যিদুনা হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম উনাকে আহত হবার কিছু দিন পূর্বে বলতে শুনেছি, মহান আল্লাহ পাক তিনি যদি আমাকে সুস্থ রাখেন, তবে ইরাকের বিধবাগণকে এমন অবস্থায় রেখে যাবো যাতে তারা আমার পরে কখনো অন্য কারো মুখাপেক্ষী না হয়। বর্ণনাকারী বলেন, অতঃপর চতুর্থ দিন তিনি আহত হলেন। যেদিন ভোরে তিনি আহত হন, আমি উনার কাছে দাঁড়িয়েছিলাম। ফজর নামাযের তাকবীর বলার পরেই আমি উনাকে বলতে শুনলাম, একটি কুকুর আমাকে আঘাত করেছে অথবা বললেন, আমাকে আক্রমণ করেছে। ঘাতক দ্রুত পলায়নের সময় দু’ধারী খঞ্জর (ছুরি) দিয়ে ডানে বামে আঘাত করে চলছে। এভাবে সে ১৩ জনকে আহত করলো। এদের মধ্যে ৭ জন শহীদ হলেন। এ অবস্থা দেখে এক মুসলিম উনার লম্বা চাদরটি ঘাতকের উপর ফেলে দিলেন। ঘাতক যখন বুঝতে পারলো যে, সে ধরা পড়ে যাবে, তখন সে আত্মহত্যা করলো।
তখন আমীরুল মু’মিনীন, খলীফাতুল মুসলিমীন সাইয়্যিদুনা হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম তিনি বললেন, হে হযরত আব্বাস রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু! দেখুন তো কে আমাকে আঘাত করলো? তিনি কিছুক্ষণ অনুসন্ধান করে এসে বললেন, হযরত মুগীরাহ ইবনে শুবাহ রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু উনার দাস আবূ লুলু। আমীরুল মু’মিনীন, খলীফাতুল মুসলিমীন সাইয়্যিদুনা হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম তিনি জিজ্ঞেস করলেন, ওই কারিগর দাসটি? তিনি বললেন, হ্যাঁ। আমীরুল মু’মিনীন, খলীফাতুল মুসলিমীন সাইয়্যিদুনা হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম তিনি বললেন, মহান আল্লাহ পাক তিনি তার সর্বনাশ করুন। আমি তার সম্পর্কে সঠিক সিদ্ধান্ত দিয়েছিলাম। আলহামদুলিল্লাহ, মহান আল্লাহ পাক তিনি আমার বিছাল শরীফ পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার দাবিদার কোনো ব্যক্তির হাতে ঘটাননি।
অতঃপর উনাকে উনার ঘরে নেয়া হলো। মানুষের অবস্থা দৃষ্টে মনে হচ্ছিল, ইতঃপূর্বে তাদের উপর এত বড় মুছীবত আর আসেনি। অতঃপর খেজুরের শরবত আনা হলো, তিনি তা পান করলেন। কিন্তু তা উনার পেট মুবারক হতে বেরিয়ে পড়লো। অতঃপর দুধ আনা হলো, তিনি তা পান করলেন; তাও উনার পেট মুবারক হতে বেরিয়ে পড়লো। তখন সকলেই বুঝতে পারলেন, উনার বিছাল শরীফ অবশ্যম্ভাবী।
অতঃপর উনি উনার ছেলে হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে উমর রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু উনাকে বললেন, আমার পক্ষ হতে উম্মুল মু’মিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত ছিদ্দীক্বা আলাইহাস সালাম উনার মুবারক খিদমতে গিয়ে আরজ করুন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার এবং সাইয়্যিদুনা হযরত ছিদ্দীক্বে আকবর আলাইহিস সালাম উনাদের পবিত্র রওযা শরীফ উনাদের পাশে আমার দাফন মুবারক করা হয়। সুবহানাল্লাহ!
একথা শুনে উম্মুল মু’মিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত ছিদ্দীক্বা আলাইহাস সালাম তিনি বললেন, এটা আমারই আকাঙ্খা ছিল। কিন্তু আজ আমি এ ব্যাপারে আমার উপরে উনাকে অগ্রগণ্য করছি। খলীফাতুল মুসলিমীন, আমিরুল মু’মিনীন সাইয়্যিদুনা হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম তিনি এ কথা শুনে বললেন, আলহামদুলিল্লাহ! এর চেয়ে বড় কোনো বিষয় আমার নিকট ছিল না। ২৭শে যিলহজ্জ শরীফ ইয়াওমুস সাব্ত বা শনিবার তিনি পবিত্র শাহাদাত শরীফ গ্রহণ করেন।
হযরত ছুহাইব রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু তিনি উনার জানাযা নামায পড়ান। পবিত্র রওযায়ে নববী শরীফ উনার মধ্যে সাইয়্যিদুনা হযরত ছিদ্দীক্বে আকবর আলাইহিস সালাম উনার বাম পাশে উনাকে দাফন মুবারক করা হয়। পবিত্র শাহাদাত শরীফ গ্রহণকালে উনার বয়স মুবারক হয়েছিল ৬৩ বছর। সুবহানাল্লাহ!
আমীরুল মু’মিনীন, খলীফাতুল মুসলিমীন সাইয়্যিদুনা হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম তিনি যেদিন বিছাল শরীফ গ্রহণ করেন, সেদিন গায়েবী থেকে দুটি কবিতা শ্রুত হয় কিন্তু কবিতা আবৃত্তিকারীকে দেখা যায়নি। কবিতা দুটির মর্ম হচ্ছে এই, “পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার উপর কেউ ক্রন্দন করতে চাইলে সে ক্রন্দন করুক; বেশি সময় অতিবাহিত হয়নি, লোকেরা ধ্বংসের পানে উপনীত হয়েছে। দুনিয়া হতে শুভ কল্যাণ দূরে সরে গিয়েছে এবং ভালো লোকেরা দুনিয়ায় দুঃখ দুর্দশায় পতিত হয়েছে। মূলত, এ দুদর্শা বর্তমান যামানায় আরো বহুমুখী এবং ব্যাপকভাবে বিরাজমান।”
এর থেকে নাজাতপ্রাপ্তির লক্ষ্যে রাষ্ট্রদ্বীন ইসলাম উনার দেশে, ৯৭ ভাগ মুসলমান অধ্যুষিত দেশে উনার শাহাদত দিবস ব্যাপক শান-শাওকতের সাথে পালন করে উনার আদর্শে অনুপ্রাণিত হওয়া উচিত। কিন্তু তা না করার জন্যই আজ আমাদের চলমান অর্থনৈতিক সংস্কৃতিক এবং শাসনতান্ত্রিক ও আদর্শিক সঙ্কট। অথচ সাইয়্যিদুনা হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম উনার মূল্যায়নেই অনুসরণ, অনুকরণেই রয়েছে এর থেকে মুক্তি।
মূলত, এসব অনুভূতি ও দায়িত্ববোধ আসে পবিত্র ঈমান ও পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনাদের অনুভূতি ও প্রজ্ঞা থেকে। আর তার জন্য চাই নেক ছোহবত তথা মুবারক ফয়েজ-তাওয়াজ্জুহ।
যামানার ইমাম ও মুজতাহিদ, যামানার মুজাদ্দিদ, মুজাদ্দিদে আ’যম আলাইহিস সালাম উনার নেক ছোহবত মুবারকে সে মহান ও অমূল্য নিয়ামত মুবারক হাছিল সম্ভব। খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি আমাদেরকে তা নছীব করুন। (আমীন)
দেশের খবর
দেশের কৃষকদের রক্ষায় গঙ্গায় বাঁধ ‘প্রয়োজন’
দেশে মোবাইল ব্যবহারকারী ১২ কোটি
সড়কে মৃত্যুর মিছিল, নেই ‘প্রকৃত’ পরিসংখ্যান!
প্রধানমন্ত্রীকে কটূক্তিকারী যুবক দুই দিনের রিমান্ডে
এই গণতান্ত্রিক সরকারের অগ্রযাত্রা কেউ ব্যাহত করতে পারবে না
অবৈধ অস্ত্রের প্রধান ক্রেতা আ.লীগ নেতাকর্মী
বিএনপি-জামাত ইসরায়েলি বাহিনীর চেয়েও হিংস্র - ড. হাছান মাহমুদ
‘গ্যাস ও বিদ্যুতের দাম বাড়ালে গণ-আন্দোলন’
‘বখশিসের টাকারও কর দিই’
ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা : দুদকের ডিজিসহ ৯ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অনুসন্ধান
দুর্ঘটনা প্রতিদিনের, কান্নাও প্রতিদিনের
সীমান্তে বাংলাদেশিকে সাম্প্রদায়িক বিএসএফের গুলি
গো’আযমের আপিল শুনানি ২ ডিসেম্বর
লিমনের পায়ে গুলি ‘নিছক দুর্ঘটনা’
শীতকালীন আগাম সবজি চাষে বদলে যাচ্ছে পাহাড়িদের জীবন
লন্ডনে তারেকের উপদেষ্টা সায়েম গ্রেপ্তার
সংবিধান অনুসারে সকল ধর্মের পবিত্রতা রক্ষা করা হবে : তথ্যমন্ত্রী
দুর্ঘটনায় চালকদের জীবনও নিরাপদ নয় -সেতুমন্ত্রী
স্বার্থবিরোধী হরতাল দিয়ে পার পাওয়া যাবে না : মায়া
সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের স্বাস্থ্য বীমার আওতায় আনার প্রস্তাব করবে পে-কমিশন
রাজাকার হাসান আলীর বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের আদেশ ১১ নভেম্বর
লক্ষ্মীপুরের জেল সুপার ও জেলার বরখাস্ত
পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ৫ জন নিহত আহত ৩৭
Anjuman-e Al Baiyinaat, Sweden
কবিতা






For the satisfaction of Mamduh Hazrat Murshid Qeebla Alaihis Salam
Site designed & developed by Muhammad Shohel Iqbal