অনুগ্রহ করে অপেক্ষা করুন...
 

যামানার লক্ষ্যস্থল ওলীআল্লাহ, যামানার ইমাম ও মুজতাহিদ, ইমামুল আ’ইম্মাহ, মুহইস সুন্নাহ, ক্বাইয়্যুমুয্ যামান, কুতুবুল আলম, হুজ্জাতুল ইসলাম, সুলত্বানুল আউলিয়া ওয়াল মাশায়িখ, ছাহিবু সুলত্বানিন নাছীর,
মাহিউল বিদয়াহ, রসূলে নুমা, গাউছুল আ’যম, সাইয়্যিদুল আউলিয়া, ইমামুল উমাম, সাইয়্যিদুল খুলাফা, আস সাফফাহ, হাবীবুল্লাহ্, আওলাদে রসূল, রাজারবাগ শরীফ-এর মুর্শিদ ক্বিবলাহ
The Daily Al Ihsan
বিশ্বের সমস্ত দেশ থেকে পঠিত আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত এর
আক্বীদায় প্রতিষ্ঠিত একমাত্র আন্তর্জাতিক ইসলামী পত্রিকা
Arabic .  বাংলা .  Urdu .  English .  Japanese .  Swedish
২৪ মাহে জুমাদাল উখরা, ১৪৩৫ হিজরী, ২৫ হাদি আ’শির, ১৩৮১ শামসি
২৫ এপ্রিল, ২০১৪ ঈসায়ী সন, ১২ বৈশাখ, ১৪২০ ফসলী সন
ইয়াওমুল জুমুয়াতি (শুক্রবার)
al-ihsan al-ihsan al-ihsan
al-ihsan
মুজাদ্দিদে আ’যম আলাইহিস সালাম উনার দোয়ার বরকতে মুসলমানদেরকে জুলুম নির্যাতন করার ফলে জুলুমবাজ কাফিরদের উপর খোদায়ী গজব
  • <font class='SlideCaptionBN'>প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে কানাডার ভানকুভার দ্বীপে গত বুধবার রাতে একটি শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। রিখটার স্কেলে এর মাত্রা ছিল ৬.৭।</font>
  • <font class='SlideCaptionBN'>খরার কারণে মারাত্মক ফসলহানীর কারণে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৯ স্টেটের ৩১৫ কাউন্টিকে দুর্যোগগ্রস্ত এলাকা হিসেবে ঘোষণা করেছে মার্কিন কৃষি বিভাগ।</font>
  • <font class='SlideCaptionBN'>চীনের মোট পানির শতকরা ৬০ ভাগ এতটাই দূষিত যে তা পান করার অনুপযুক্ত। </font>
Al Baiyinaat : e Version Al Ihsan : e Version
সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ উপলক্ষে প্রকাশিত
পোষ্টার, স্ক্রিনসেভার, ওয়ালপেপার সমুহ ডাউনলোড করুন।
বিশ্বের সমস্ত দেশ ও শহর থেকে পঠিত
ইসলামী শরীয়ত সম্মত একমাত্র পত্রিকা
"দৈনিক আল ইহসান"

বিজ্ঞাপনের মুল্য তালিকা
নামাজের সময়সূচী
জেলা : ঢাকা ও পার্শ্ববর্তী এলাকা
ওয়াক্তশুরুশেষ
সাহ্‌রীর শেষ সময়০৪:০৮
ফজর০৪:১৩০৫:২৯
ইশরাক০৫:৫৩০৭:২০
চাশত্‌০৭:২১১০:৫৭
জাওয়াল১১:৫৮যোহর নামায পড়ার পূর্ব পর্যন্ত
যোহর১১:৫৮০৪:৩১
আছর০৪:৩২০৬:০৬
মাগরিব০৬:২৯০৭:৪২
আওয়াবীনবাদ মাগরিব০৭:৪২
ইশা০৭:৪৩০৪:০৭
তাহাজ্জুদ১১:১৮০৪:০৭
আগামীকাল ফজর০৪:১২০৫:২৮
আগামীকাল সূর্যোদয়০৫:২৯-
আজ সূর্যোদয়০৫:৩০-
আজ সূর্যাস্ত০৬:২৪-
সূত্র: গবেষণা কেন্দ্র- মুহম্মদিয়া জামিয়া শরীফ, ঢাকা

 
Saieedul Aaiyad
Saieedul Aaiyad
Saieedul Aaiyad
RajarbagShareef.net
Radio 'Al-Hikmah'
Special Days in Islam
majlisu-ruiatil-hilal
International Voice Room
Noorun Alaa Noor
Donate for Daily Al Ihsan Shareef Donate for Daily Al Ihsan Shareef


» কোরআন শরীফের তরজমা ও তাফছির(তরজমায়ে মুজাদ্দিদে আজম)
» ফিক্বহুল হাদিস ওয়াল আছার
» আহ্‌লে সুন্নাত ওয়াল জামাতের আক্বীদা
» মারিফাতুছ ছাহাবা রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম
» আউলীয়া-ই-কিরাম রহমতুল্লাহী আলাইহিম
 
» আত-তাক্বউইমুশ শামসি
» ইসলামের বিশেষ দিন সমূহ
» আহ্‌কামু রমাদ্বানাল মুবারক
» আহ্‌কামুয্‌যাকাত
(যাকাতের হুকুম-আহ্‌কাম)
» বিষয় ভিত্তিক বিশেষ প্রবন্ধ
 
» মাসিক আল বাইয়্যিনাত
» ওয়াজ শরীফ
» ক্বাছীদা আনজুমান
» মক্ববুল মুনাজাত শরীফ
» প্রকাশিত কিতাব সমূহ
 
» ফতওয়া বিভাগ
» সুওয়াল জাওয়াব বিভাগ
» মাসের ফজিলত ও প্রাসঙ্গিক আলোচনা
 
» পত্রিকার মূল সংস্করণ
 
» আপনার মতামত পাঠান
» আর্কাইভ থেকে পড়ুন
 
» সুন্নতি সামগ্রী
» কবিতা
» সবুজ বাংলা ব্লগ

 
মুজাদ্দিদে আ’যম হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম-উনার ক্বওল শরীফ
মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘তোমরা তোমাদের মহান রব তায়ালা উনার হুকুম বা আদেশের প্রতি দৃঢ় থাকো। কোনো অবস্থাতেই গুনাহগার ও কাফিরদের অনুসরণ করো না।’
সম্মানিত ইসলামী শরীয়ত উনার দৃষ্টিতে মুসলমান উনাদের জন্য ‘পহেলা মে’ পালন করা জায়িয নেই; বরং হারাম ও কুফরী।
কারণ পহেলা মে ‘আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবস’ হিসেবে পালিত হওয়ার নেপথ্যে রয়েছে সাম্রাজ্যবাদী ইহুদী-নাছারা, বেদ্বীন-বদদ্বীনদের তথা বিধর্মী কাফিরদের কর্তৃক সম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনার বিরোধিতা করার সূক্ষ্ম ষড়যন্ত্র।

আর ইহুদী-নাছারা, বেদ্বীন-বদদ্বীনদের তথা বিধর্মী কাফিরদের ষড়যন্ত্রে বিভ্রান্ত হয়ে সম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনার অনুশাসন ভুলে মুসলিম দেশগুলোও বিধর্মী কাফিরদের কর্তৃক প্রবর্তিত কুফরী রীতি সম্বলিত ‘পহেলা মে’ পালন করে থাকে। নাউযুবিল্লাহ!
সম্মানিত দ্বীন ইসলাম শ্রমিকের সর্বোচ্চ মৌলিক মর্যাদাকে প্রতিষ্ঠিত করেছে, যা কোনো দিবস নির্ভর নয়।
কাজেই শ্রমিকের হক্ব পরিপূর্ণ আদায় করতে হলে সম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনাকেই পরির্পূ অনুসরণ করতে হবে।
আপনাদের মতামত
মুজাদ্দিদে আ’যম সাইয়্যিদুনা ইমাম রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার মকবুল মুনাজাত শরীফ উনার বেমেছাল রূহানীয়ত সমৃদ্ধ রোব মুবারক উনার ফলেই খোদায়ী গযবে পর্যুদস্ত বিশ্বের সকল কাফির-মুশরিকদের দেশ
দেশকে অদূর ভবিষ্যতে ভারতের করতলে দিতেই কি রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা হচ্ছে?
ইসলামকে ছোট করার জন্য মিডিয়ার নতুন কৌশল
নরেন্দ্র মোদিকে ভোট দিতে ইন্টারনেটে বাংলা ভাষায় যে প্রচারণা চলছে, তার শতভাগই সম্পাদন করছে বাংলাদেশের হিন্দুরা।
কুশীল সমাজ কার পক্ষ নিবে? শরতের না, রবীন্দ্র ঠগের?-----৩
প্রসঙ্গ : বাংলাদেশ নিয়ে ভারতীয় হিন্দুদের উস্কানিমূলক বক্তব্য
ভারত বেশি বাড়াবাড়ি করলে আমরা ভারত ভূখণ্ডে প্রবেশ করে অখণ্ড বাংলা গঠন করবো
সম্পাদকীয়
সব প্রশংসা মুবারক খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনার জন্য। সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার প্রতি অফুরন্ত দুরূদ শরীফ ও সালাম মুবারক।
তাপপ্রবাহে অস্থির জনজীবন। অথচ ‘ব্যতিক্রমী আবহাওয়া’র এই বিরূপ প্রভাব শিগগির কাটবে এমন সুখবর নেই। বৃষ্টিপাত এমনকি কালবৈশাখীরও আগাম কোনো খবর নেই। আবহাওয়াবিদরা বলছে, এপ্রিল-মে মাসজুড়েই গরমের এই যন্ত্রণা সইতে হতে পারে দেশবাসীকে। কারণ বৃষ্টি না হলে পরিস্থিতির উন্নতির কোনো সম্ভাবনা নেই।
কোথাও কোথাও দৃশ্যতই ছিটেফোঁটা বৃষ্টিপাত ছাড়া সারা দেশে মাসজুড়েই চলছে তাপপ্রবাহ। বৈশাখ মাসেও দেখা নেই কালবৈশাখীর, স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত তো দূরের কথা। উপরন্তু আবহাওয়া অফিস এখন বলছে, ঝড়-বৃষ্টিতে গরম কিছুটা কমবে- শিগগির এমন সম্ভাবনা নেই। ‘ব্যতিক্রমী আবহাওয়ার’ কারণে মাসজুড়েই গরমের দুর্ভোগ চলবে।
গত কয়েক বছরের মধ্যে এবারই গ্রীষ্মে বেশ কিছুটা ‘ব্যতিক্রমী আবহাওয়া’ দেখা যাচ্ছে। স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত প্রায় হচ্ছেই না। কেননা স্বাভাবিক দখিনা বাতাস এবার প্রবাহিত হচ্ছে না একেবারে। বঙ্গোপসাগর থেকেও বয়ে আসছে না জলীয় বাষ্প। উড়িষ্যা অঞ্চলে সৃষ্টি হয়নি নিম্নচাপ। সব মিলিয়ে শিগগির ঝড়-বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই।
এদিকে তীব্র গরমে নানান ভোগান্তির সঙ্গে বাড়ছে রোগ-ব্যাধি। বিদ্যুৎবিভ্রাট তথা লোডশেডিং যোগ করেছে চরম দুর্ভোগ।
প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগে ১০ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের সক্ষমতা অর্জন করার কথা বলে সরকার ঘটা করে আলোক উৎসব করেছিল। বিদ্যুৎ উৎপাদনে আওয়ামী লীগ সরকার অনেক উন্নতি করেছে এ তথ্য গত জাতীয় নির্বাচনের ইশতেহারেও বলা হয়েছে। এছাড়া ঢাকাসহ সারা দেশে বিদ্যুতের সাফল্যগাথা বর্ণনা করে বিলবোর্ডও টাঙানো হয়েছে। কিন্তু সেই সাফল্যের প্রচারণা ডাহা মিথ্যা হতে বসেছে ঢাকাসহ সারা দেশে চলমান তীব্র লোডশেডিংয়ে। তীব্র তাপপ্রবাহে যখন পুড়ছে দেশ তখন এই লোডশেডিং মানুষের জীবনযাত্রাকে ভীষণ অসহনীয় করে তুলেছে।
রাজধানী ঢাকায় দিন-রাত মিলিয়ে কোথাও কোথাও সাত থেকে আট ঘণ্টা বিদ্যুৎ থাকছে না। ঢাকার বাইরে অবস্থা আরো খারাপ। অসহনীয় গরমে মধ্যরাতে বিদ্যুৎ চলে যাওয়ায় জীবন দুর্বিষহ হয়ে উঠছে। বিদ্যুতের এই পরিস্থিতির সহসা উন্নতিরও কোনো খবর নেই। বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (পিডিবি) বলছে, বৃষ্টি না হলে পরিস্থিতির উন্নতি হবে না। তীব্র তাপপ্রবাহের কারণে বিদ্যুতের ব্যবহার বেড়ে যাওয়ায় লোডশেডিং হচ্ছে। পিডিবি’র সদস্য (উৎপাদন) বলেন, ‘তীব্র তাপপ্রবাহের কারণে বিদ্যুতের ব্যবহার বেড়ে গেছে। শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ যন্ত্রের ব্যবহার বেড়ে গেছে। এ কারণে লোডশেডিং হচ্ছে।’ তিনি বলেন, আপাতত কিছু করার নেই। বৈশাখ মাসের এই সময়টাতে সাধারণত বৃষ্টিপাত হয়। এবার এখনো বৃষ্টির দেখা নেই। আর বৃষ্টি নামলেই কেবল পরিস্থিতির উন্নতি ঘটবে।
সরকারি হিসাবে ৩০ মার্চ সর্বাধিক রেকর্ড পরিমাণ সাত হাজার ৩৫৬ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হয়। কিন্তু তার উপকার পাচ্ছেন না গ্রাহকরা। আর লোডশেডিং ও তীব্র গরমে এখন দুর্ভোগে পড়েছেন উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী, কৃষক ও শিল্প কারখানার মালিকসহ সারা দেশের বিদ্যুতের গ্রাহকরা।
ক্ষুব্ধ গ্রাহকদের অনেকেরই প্রশ্ন, সরকার এত বিদ্যুৎ উৎপাদনের কথা বলছে, আলোক-উৎসব করছে অথচ লোডশেডিং ঠেকিয়ে রাখা যাচ্ছে না, তাহলে এত বিদ্যুৎ যাচ্ছে কোথায়? খোঁজ নিয়ে জানা যায়, আপাতত শহরাঞ্চলে লোডশেডিং সহনীয় পর্যায়ে (ক্ষেত্রবিশেষে এলাকাভেদে এক থেকে দুই ঘণ্টা) হলেও গ্রামাঞ্চলে পরিস্থিতি বেশি খারাপ। লোডশেডিং সংক্রান্ত এ দৃশ্যের সঙ্গে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের (পিডিবি) হিসাবে অমিল রয়েছে। পিডিবি দেশে ‘শূন্য লোডশেডিং’-এর কথা উল্লেখ করছে। কিছু দিন আগেই বিদ্যুৎ, খনিজ ও জ্বালানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, দেশে এখন এক সেকেন্ডের জন্যও লোডশেডিং নেই। তবে ভুক্তভোগী গ্রাহকরা বলছেন ভিন্ন কথা। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, রাজধানীর সব এলাকার বাসিন্দারা দিনে কমপক্ষে চারবার লোডশেডিংয়ের মুখোমুখি হচ্ছেন। ঢাকার বাইরে জেলা, উপজেলা ও গ্রামগুলোতে ১২ থেকে ১৪ ঘণ্টা করে লোডশেডিং হচ্ছে।
বিশেষজ্ঞ মহল মনে করে, সরকার বিদ্যুৎ নিয়ে একেবারেই ভুল পথে এগোচ্ছে। কারণ বিদ্যুৎ মন্ত্রণালয় অজ্ঞ, রাজনৈতিক দলের কর্মীদের কোনো টেন্ডার ছাড়াই বিদ্যুৎ কেন্দ্র বসানোর অনুমতি দিয়েছে। অনুমতি দেয়া হয়েছে বিদেশের পুরানো মেশিনভিত্তিক তথাকথিত কুইক রেন্টাল বিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলোকে। যেগুলো এক একটা শ্বেতহস্তী ছাড়া কিছুই নয়। সামান্য বিদ্যুতের পরিবর্তে এখানে চলছে অব্যাহত ও অসামান্য লুটপাট।
পাশাপাশি এটা সহজেই অনুধাবনযোগ্য যেÑ নির্দিষ্ট ক্ষমতার বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রগুলো প্রয়োজনীয় বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে পারছে না এর যন্ত্রাংশ পুরোনো ও অকেজো হয়ে যাওয়ার কারণে। এগুলো মেরামত ও নতুন বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের কোনো বিকল্প আছে কি?
সরকারকে মনে রাখতে হবে এখন ভুক্তভোগী মানুষ সরকারের আর কোনো আশ্বাস কিংবা পরামর্শ শুনতে চায় না। তারা ফল দেখতে চায়। লোডশেডিংয়ের কারণে জনঅসন্তোষ যে সহ্যসীমা অতিক্রম করে যাচ্ছেÑ এটা সরকারকে বুঝতে হবে। এ অবস্থায় কর্তৃপক্ষের তাৎক্ষণিকভাবে দ্রুত করণীয় নির্ধারণের কোনো বিকল্প নেই। লোডশেডিং রাজধানীসহ দেশের মানুষের সহ্যসীমায় রাখতে বিদ্যুতের পুরোনো ইউনিট মেরামত, কয়লা ও গ্যাসভিত্তিক নতুন কেন্দ্র স্থাপনসহ জরুরিভিত্তিতে সরকারকে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে হবে। আমরা চাই, বিদ্যুৎ সঙ্কটকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়ে সরকার এর ত্বরিত সমাধানে তৎপর হোক।
মূলত, এসব দায়িত্ববোধ আসে ইসলামী অনুভূতি ও প্রজ্ঞা থেকে। আর তার জন্য চাই নেক ছোহবত তথা ফয়েজ-তাওয়াজ্জুহ।
যামানার ইমাম ও মুজতাহিদ, মুজাদ্দিদে আ’যম রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার নেক ছোহবতে তা খুব সহজেই পরিপূর্ণ হাছিল সম্ভব। মহান আল্লাহ পাক তিনি আমাদেরকে তা নছীব করুন। (আমীন)
বিশেষ প্রতিবেদন
ফিরে দেখা ইতিহাস
ঘাতক রাজাকার, আল-বাদর
মওদুদী জামাতী, দেওবন্দী খারিজী, ওহাবী সালাফীদের দিনলিপি
২৪শে এপ্রিল, ১৯৭১ ঈসায়ী
মুক্তিযুদ্ধ ও মুক্তিযোদ্ধাদের বিরুদ্ধে ঘাতক গুরু গো’আযমের অপতৎরতা-৭
জেএমবি’র বিপুল সম্পদ-২
‘আত-তাক্বউইমুশ শামসি’-
আগামী পৃথিবীর জন্য রচিত একটি আদর্শ সৌর ক্যালেন্ডার
ভারতে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করতে দেয়নি সাম্প্রদায়িক হিন্দুরা। তাহলে এদেশে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা হয় কি করে?
ভারতের ৪০ শতাংশেরও বেশি জনগোষ্ঠী হচ্ছে মুসলমান, তারপরও তারা ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় বানানোর অনুমতি পায়নি।
অথচ বাংলাদেশের মতো ৯৭ ভাগ মুসলমান অধ্যুষিত দেশে রবীন্দ্র আদর্শের নামে হিন্দুত্ববাদ প্রচারের লক্ষ্যে
কট্টর মুসলিমবিদ্বেষী, উগ্র হিন্দুত্ববাদের ধারক বাহক, চরম সাম্প্রদায়িক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং পূর্ববঙ্গ প্রদেশ গঠনের চরম বিরোধিতাকারী তথা রাজাকার, ভারতীয় কবি রবীন্দ্র ঠগের নামে
রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন কখনোই গ্রহণযোগ্য নয়।
অবিলম্বে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যায়ের নামে ভারতীয় দালাল তৈরির কারখানা তথা ভারতীয় উগ্র হিন্দুত্ববাদ প্রচারের এ কারখানা প্রতিষ্ঠা বন্ধ করতে হবে। (১)
দেশের খবর
এরশাদের রাডার ক্রয় দুর্নীতি মামলায় সাক্ষ্য গ্রহণ সম্পন্ন
বন্যহাতির আক্রমণে নিহত ২, আহত ২
চট্টগ্রামে গ্রেনেডসহ বিপুল পরিমাণ গোলাবারুদ উদ্ধার
মালিবাগে শ্রমিক অসন্তোষ, ভাঙচুর
টিকফার প্রথম বৈঠকে জিএসপি পুনর্বহাল নিয়ে আলোচনা -মজিনা
বিল্ডিং কোড না মানলে ভবন হবে না - ভূমিমন্ত্রী
৯৭ ইউনিয়নে উপ- নির্বাচন ২৭ মে
দুর্নীতির কারণে ৩ সাব-রেজিস্ট্রার বরখাস্ত
৪৮৫ বোতল ভারতীয় মদসহ যুবককে আটক
জাতীয় স্বার্থে জামাতকে ডাকা যাবে না -সিপিবি
বাংলাদেশের ইউনিসেফ এক্সিকিউটিভ বোর্ডের সদস্য পদ লাভ
রাজশাহীতে খরায় ঝরছে কচি আম
রানায় ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য বরাদ্দকৃত অর্থের অপব্যবহার হয়েছে -ফখরুল
ঢাকায় ভারতের সাবেক প্রধান বিচারক-
বিচারবহির্ভূত হত্যাকা- হলে বিচার বিভাগ থাকলো কোথায়?
ওষুধ শিল্প পার্রে কাজ দ্রুত সম্পন্ন করার নির্দেশ শিল্পমন্ত্রীর
রাজধানীতে জাল টাকাসহ আটক ৩
সীমান্তে স্পর্শকাতর ঘটনা মীমাংসার ক্ষমতা প্রার্থনা জেলা প্রশাসকদের
জুনে নির্মাণ শুরু, পদ্মাসেতুর কাজ পাচ্ছে চীনা কোম্পানি
এবার সন্ত্রাসবাদের অর্থ অনুসন্ধানে টাস্কফোর্স
তাপমাত্রার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে লোডশেডিং ॥
মহা দুর্ভোগে সাধারণ মানুষ
ঢাকায় ৫৪ বছরের মধ্যে রেকর্ড তাপমাত্রা, সর্বোচ্চ যশোরে
শেখ হাসিনা গায়ের জোরে ক্ষমতায় এসেছেন -দুদু
প্রত্যেক জেলায় শিশু আদালত গঠন
ফেনী-বিলুনিয়া নতুন রেল রুটের প্রস্তাব ভারতের
পানির ন্যায্য হিস্যা না পাওয়া পর্যন্ত আন্দোলন -ওসমান
পোশাক কারখানা তৈরিতে মালিকদের সতর্ক হতে হবে -বাণিজ্যমন্ত্রী
তারেকের মাথায় মগজ নেই, রয়েছে গোবর -হানিফ
ঘুরে দাঁড়াচ্ছে ‘এলোমেলো’ পোশাক শিল্প
বাংলাদেশ এখন বিচারহীন দেশ -শাহদীন মালিক
সৌরভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের পরিকল্পনা রয়েছে - প্রধানমন্ত্রী
বালিয়াডাঙ্গীতে জালিম বিএসএফের হাতে গরু ব্যবসায়ী অপহৃত
তিস্তার পানি চেয়ে তৃণমূলের সাইট হ্যাক
সহজে নির্বাচন দেবে না সরকার-রফিকুল
প্রশ্নপত্র ফাঁসের গুজব ছড়ানো হচ্ছে, ধরিয়ে দিন -শিক্ষামন্ত্রী
৮ হজ এজেন্সির লাইসেন্স বাতিল, জরিমানা
পরিবেশের ভারসাম্য হারাচ্ছে বন্দরনগরী
নিখোঁজ ৮ জনকে উদ্ধারের দাবি
রানা প্লাজা দুর্ঘটনা, কবে অভিযোগপত্র দেয়া হবে, জানাতে পারেনি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়
আউটসোর্সিংয়ে করারোপের প্রস্তাব
উঠছে ফিটনেসবিহীন গাড়ি, যানজট নিরসনে টাস্কফোর্স
কানাডা থেকে ৬০ মিলিয়ন ডলারের পটাশিয়াম কিনবে বাংলাদেশ
শিবগঞ্জে মুক্তিযুদ্ধের সময়ের ৬টি গ্রেনেড উদ্ধার
দস্যুদের আক্রমনে সুন্দরবনে ৩ মৌয়াল গুলিবিদ্ধ, অপহৃত ২
রানা প্লাজা ট্রাজেডি, প্রধানমন্ত্রীর কাছে ‘ঘুমাচ্ছে’ একশ কোটি টাকা
ফরিদপুরে ‘নারী ডাকাত’ গ্রেপ্তার
রাজধানীতে সুপেয় পানি সরবরাহে ঋণ দিচ্ছে এডিবি
Anjuman-e Al Baiyinaat, Sweden
বিদেশের খবর
চরম দারিদ্রতায় স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার সামর্থ্য নেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের
কানাডার ভানকুভার দ্বীপে ৬.৭ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্প
ধারণার চেয়েও অধিক
হ্রাস পেয়েছে মার্কিন রেস্টুরেন্টগুলোতে বেচা-বিক্রি
মোদি ক্ষমতায় এলে ছয় মাসে পাকিস্তানকে ধ্বংস করা হবে: শিবসেনা নেতা
নরেন্দ্র মোদি মিথ্যবাদী ও প্রতারক
কেজরিওয়ালের ধোকাবাজি
অবৈধ সন্তানকে আইনি স্বীকৃতি দিলো ভারতীয় সুপ্রিম কোর্ট
আফগান পুলিশের গুলিতে ৩ মার্কিনী নিহত
ভারতে লোকসভা নির্বাচনে ষষ্ঠ দফায় ১১৭ আসনে ভোট গ্রহণ শুরু
যুক্তরাজ্যে স্বাস্থ্যকর্মীদের উপর হামলা বাড়ছে, চাকুরী ছেড়ে দিতে চাইছে অনেকে
মুজাদ্দিদে আ’যম মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার দোয়া ও রোবের প্রতিফলন মুসলমানগণকে যুলুম নির্যাতন করার ফলস্বরূপ যুলুমবাজ কাফিরদের উপর বন্যা, তুষারপাত, ঘূর্ণিঝড়, দাবানল, ভূমিকম্প প্রভৃতি প্রাকৃতিক দুর্যোগসহ বিভিন্ন প্রকার বিশৃঙ্খলা অস্বাভাবিক মৃত্যু এবং অর্থনৈতিক মন্দারূপে খোদায়ী গযব অব্যাহত The reflections and effects of the supplications and dominance of Mujaddide A’azwam Mamduh Hajrat Murshid Qibla Alaihis Salam! Divine retributions are continuing on the tyrant kaafir as an end result of the persecutions on Muslims, in the form of different kinds of chaos and confusion, unnatural deaths and severe economic recessions including natural disasters like flash floods, snowfalls, tornados, wild fires and earthquakes of unusual magnitude!
কবিতা






For the satisfaction of Mamduh Hazrat Murshid Qeebla Alaihis Salam
Site designed & developed by Muhammad Shohel Iqbal