অনুগ্রহ করে অপেক্ষা করুন...
 

যামানার লক্ষ্যস্থল ওলীআল্লাহ, যামানার ইমাম ও মুজতাহিদ, ইমামুল আ’ইম্মাহ, মুহইস সুন্নাহ, ক্বাইয়্যুমুয্ যামান, কুতুবুল আলম, হুজ্জাতুল ইসলাম, সুলত্বানুল আউলিয়া ওয়াল মাশায়িখ, ছাহিবু সুলত্বানিন নাছীর,
মাহিউল বিদয়াহ, রসূলে নুমা, গাউছুল আ’যম, সাইয়্যিদুল আউলিয়া, ইমামুল উমাম, সাইয়্যিদুল খুলাফা, আস সাফফাহ, হাবীবুল্লাহ্, আওলাদে রসূল, রাজারবাগ শরীফ-এর মুর্শিদ ক্বিবলাহ
The Daily Al Ihsan
বিশ্বের সমস্ত দেশ থেকে পঠিত আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত এর
আক্বীদায় প্রতিষ্ঠিত একমাত্র আন্তর্জাতিক ইসলামী পত্রিকা
Arabic .  বাংলা .  Urdu .  English .  Japanese .  Swedish
১৬ মাহে শাওওয়াল, ১৪৩৬ হিজরী, ৩ ছালিছ, ১৩৮৩ শামসি
২ আগস্ট, ২০১৫ ঈসায়ী সন, ১৮ শ্রাবন, ১৪২১ ফসলী সন
ইয়াওমুল আহাদি (রোববার)
al-ihsan al-ihsan al-ihsan
al-ihsan
মুজাদ্দিদে আ’যম আলাইহিস সালাম উনার দোয়ার বরকতে মুসলমানদেরকে জুলুম নির্যাতন করার ফলে জুলুমবাজ কাফিরদের উপর খোদায়ী গজব
  • <font class='SlideCaptionBN'>মায়ানমারে ব্যাপক বন্যায় বহু লোক হতাহত হয়েছে।</font>
  • <font class='SlideCaptionBN'> এ পর্যন্ত উদ্ধার হয়েছে ২৭টি লাশ, </font>
  • <font class='SlideCaptionBN'>নিখোঁজ রয়েছে অনেকে। </font>
  • <font class='SlideCaptionBN'>জরুরী অবস্থা জারি করেছে দেশটির কর্তৃপক্ষ।</font>
Al Baiyinaat : e Version Al Ihsan : e Version
সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ উপলক্ষে প্রকাশিত
পোষ্টার, স্ক্রিনসেভার, ওয়ালপেপার সমুহ ডাউনলোড করুন।
বিশ্বের সমস্ত দেশ ও শহর থেকে পঠিত
ইসলামী শরীয়ত সম্মত একমাত্র পত্রিকা
"দৈনিক আল ইহসান"

বিজ্ঞাপনের মুল্য তালিকা
নামাজের সময়সূচী
জেলা : ঢাকা ও পার্শ্ববর্তী এলাকা
ওয়াক্তশুরুশেষ
সাহ্‌রীর শেষ সময়০৪:০১
ফজর০৪:০৬০৫:২৬
ইশরাক০৫:৫০০৭:২৩
চাশত্‌০৭:২৪১১:০৫
জাওয়াল১২:০৬যোহর নামায পড়ার পূর্ব পর্যন্ত
যোহর১২:০৬০৪:৪৩
আছর০৪:৪৪০৬:২৩
মাগরিব০৬:৪৭০৮:০৪
আওয়াবীনবাদ মাগরিব০৮:০৪
ইশা০৮:০৫০৪:০১
তাহাজ্জুদ১১:২৪০৪:০১
আগামীকাল ফজর০৪:০৭০৫:২৬
আগামীকাল সূর্যোদয়০৫:২৭-
আজ সূর্যোদয়০৫:২৭-
আজ সূর্যাস্ত০৬:৪২-
সূত্র: গবেষণা কেন্দ্র- মুহম্মদিয়া জামিয়া শরীফ, ঢাকা

 
Saieedul Aaiyad
Saieedul Aaiyad
Saieedul Aaiyad
RajarbagShareef.net
Radio 'Al-Hikmah'
Special Days in Islam
majlisu-ruiatil-hilal
International Voice Room
Noorun Alaa Noor
Donate for Daily Al Ihsan Shareef Donate for Daily Al Ihsan Shareef


» কোরআন শরীফের তরজমা ও তাফছির(তরজমায়ে মুজাদ্দিদে আজম)
» ফিক্বহুল হাদিস ওয়াল আছার
» আহ্‌লে সুন্নাত ওয়াল জামাতের আক্বীদা
» মারিফাতুছ ছাহাবা রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম
» আউলীয়া-ই-কিরাম রহমতুল্লাহী আলাইহিম
 
» আত-তাক্বউইমুশ শামসি
» ইসলামের বিশেষ দিন সমূহ
» আহ্‌কামু রমাদ্বানাল মুবারক
» আহ্‌কামুয্‌যাকাত
(যাকাতের হুকুম-আহ্‌কাম)
» বিষয় ভিত্তিক বিশেষ প্রবন্ধ
 
» মাসিক আল বাইয়্যিনাত
» ওয়াজ শরীফ
» ক্বাছীদা আনজুমান
» মক্ববুল মুনাজাত শরীফ
» প্রকাশিত কিতাব সমূহ
 
» ফতওয়া বিভাগ
» সুওয়াল জাওয়াব বিভাগ
» মাসের ফজিলত ও প্রাসঙ্গিক আলোচনা
 
» পত্রিকার মূল সংস্করণ
 
» আপনার মতামত পাঠান
» আর্কাইভ থেকে পড়ুন
 
» সুন্নতি সামগ্রী
» কবিতা
» সবুজ বাংলা ব্লগ

 
মুজাদ্দিদে আ’যম হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম-উনার ক্বওল শরীফ
নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘দেশের মুহব্বত জুযয়ে ঈমান।’

বাংলাদেশ ৯৮ ভাগ মুসলমান অধ্যুষিত দেশ এবং একটি স্বাধীন দেশ।

এদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের বিরোধিতাকারী, লক্ষ লক্ষ মানুষ হত্যাকারী ও লক্ষ লক্ষ মা-বোনের সম্ভ্রমহরণকারী রাজাকারদের বিচারের ব্যাপারে আমেরিকা-ব্রিটেনসহ অন্যান্য বিদেশীদের নাক গলানো মূলত এদেশের স্বাধীনতার প্রতি হস্তক্ষেপ করার নামান্তর; যা কখনোই বরদাশতযোগ্য নয়।

তাই শতকরা ৯৮ ভাগ মুসলমান অধ্যুষিত দেশ বাংলাদেশ সরকারের জন্য ফরয হচ্ছে,

দেশী-বিদেশী কোনো অপশক্তির চাপে নতিস্বীকার না করে এবং কালবিলম্ব না করে অতিসত্বর সকল যুদ্ধাপরাধীদের উপযুক্ত বিচার করে ও বিচারের রায় অতিসত্ত্বর কার্যকর করে জনগণকে দেয়া ওয়াদা পূরণ করা।

অন্যথায় সরকারকে ইহকাল ও পরকালে কঠিন জাবাবদিহিতার সম্মুখীন হতে হবে।
আপনাদের মতামত
মুজাদ্দিদে আ’যম মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার দোয়া ও রোবের প্রতিফলন মুসলমানগণকে যুলুম নির্যাতন করার ফলস্বরূপ যুলুমবাজ কাফিরদের উপর বন্যা, তুষারপাত, ঘূর্ণিঝড়, দাবানল, ভূমিকম্প প্রভৃতি প্রাকৃতিক দুর্যোগসহ বিভিন্ন প্রকার বিশৃঙ্খলা অস্বাভাবিক মৃত্যু এবং অর্থনৈতিক মন্দারূপে খোদায়ী গযব অব্যাহত
পানি সমস্যার অন্যতম সমাধান ‘নদী ড্রেজিং’
কথিত দাতা সংস্থা আইএমএফ-বিশ্বব্যাংকদের থেকে ঋণ নেয়ার পরিণতি কেমন হয়
ওরা কি প্রগতীশীল মুক্তমনা নাকি ইসলাম বিদ্বেষী ?
দুটি সংবাদ ও একটি পর্যালোচনা:
‘আইএমএফ-এর শর্ত মেনেই অর্থ নেবে সরকার’ এবং ‘গ্রিসকে কংকাল বানিয়েছে আইএমএফ’
সেবাদানের নামে ক্লিনিকগুলোতে চলছে বাণিজ্য:
চিকিৎসার টাকা দিতে না পেরে সন্তানকে ৭ তলা থেকে ফেলে দিল বাবা
প্রসঙ্গ: পবিত্র আল আকসা মসজিদে ইসরাইলি পুলিশের অভিযান
মুসলিম বিশ্বের প্রতিবাদ কোথায়?
সম্পাদকীয়
সমস্ত প্রশংসা মুবারক খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনার জন্য; যিনি সকল সার্বভৌম ক্ষমতার মালিক। সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নবী আলাইহিমুস সালাম উনাদের নবী, রসূল আলাইহিমুস সালাম উনাদের রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার প্রতি অফুরন্ত দুরূদ শরীফ ও সালাম মুবারক।
পেট্রোবাংলার শেষ জরিপে বলা হয়েছে, দেশে আবিষ্কৃত গ্যাস মজুদের পরিমাণ ২০ দশমিক ৭ ট্রিলিয়ন ঘনফুট। এর মধ্যে ব্যবহৃত হয়েছে, ১২ দশমিক ৪১ টিএফসি। মজুদ রয়েছে, ৮ দশমিক ২৩ টিএফসি গ্যাস। দেশে প্রতিবছর গড়ে প্রায় এক টিএফসি গ্যাস ব্যবহৃত হচ্ছে। এ হিসাবে আবিষ্কৃত গ্যাসের মজুদ দিয়ে সর্বোচ্চ ৮ বছর চালানো যাবে। এই বাস্তবতায় নতুন করে গ্যাসের কোন সন্ধান মেলেনি। গভীর সমুদ্রে এবং স্থলে যেসব বিদেশী কোম্পানি তেল ও গ্যাস অনুসন্ধানের দায়িত্ব পেয়েছে সেসব কোম্পানি এখন পর্যন্ত সাফল্যের মুখ দেখেনি। বলা হচ্ছে, পেট্রোবাংলার সাথে বনিবনা না হওয়ায় অনুসন্ধান কার্যক্রম গুটিয়ে নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক কোম্পানি কনোকো ফিলিপস। দীর্ঘ আট বছর পর তারা ঘোষণা দিয়েই তাদের কার্যক্রম গুটিয়ে নিয়েছে। তেল গ্যাস অনুসন্ধানে সিঙ্গাপুরভিত্তিক বহুজাতিক কোম্পানি ক্রিস এনার্জিও একরকম হাত-পা গুটিয়ে বসে আছে। এদিকে গ্যাস সংকটের কারণে বিদেশী বিনিয়োগ আশানুরূপ না হওয়া প্রসঙ্গে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমদ বলেছে, জমি ও গ্যাস সংকটের কারণে চাহিদা মোতাবেক বিদেশী বিনিয়োগ পাচ্ছি না।
উল্লেখ্য, আজকের যুগে অর্থনৈতিক উন্নয়নে শিল্পায়নের কোনো বিকল্প নেই। শিল্পায়নের জন্য চাই পর্যাপ্ত জ্বালানি শক্তি। এদিক থেকে বাংলাদেশ খুবই পিছিয়ে। বাংলাদেশে পাওয়া যায় এমন জ্বালানির মধ্যে অন্যতম হলো গ্যাস । বলা যায় বাংলাদেশের প্রধান প্রাকৃতিক সম্পদ হলো গ্যাস। কিন্তু চরম সত্য হলো প্রকৃতির এই সম্পদ ধীরে ধীরে ফুরিয়ে আসছে।
জ্বালানি শক্তির ক্রমবর্ধমান চাহিদা পূরণে সরকার বিদ্যুত খাতের উন্নয়নকে অগ্রাধিকার দিয়েছে এবং উৎপাদন ব্যাপকহারে বৃদ্ধির মহাপরিকল্পনা নিয়েছে। বিদ্যুৎ উৎপাদনে আঞ্চলিক সহযোগিতা গড়ে তোলার জন্য ভুটান, নেপাল ও ভারতের সঙ্গে সমঝোতায় উপনীত হয়েছে। তারপরও নিজস্ব জ্বালানি শক্তির আলাদা গুরুত্ব রয়েছে এবং সে বিষয়টি বিবেচনা করে গ্যাসের অপচয় বন্ধেও উদ্যোগ নেয়া দরকার।
দেশের সবচেয়ে বড় বিতরণ কোম্পানি তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির একটি জরিপ মতে, তাদের বিতরণ এলাকার শিল্পপ্রতিষ্ঠানগুলোর পুরনো প্রযুক্তির বয়লার নতুন প্রযুক্তিতে রূপান্তর করে দৈনিক ১৫ কোটি ঘনফুট গ্যাস সাশ্রয় করা সম্ভব। এই রূপান্তরে ব্যয়ও বেশি নয়। এছাড়া তিতাসের আওতাধীন এলাকার আবাসিক গ্রাহকদের চুলাগুলো উন্নত প্রযুক্তির করা হলে এবং রাস্তা থেকে রান্নাঘরে গ্যাস নেয়ার লাইনগুলো যথাযথভাবে রক্ষণাবেক্ষণ করা হলে প্রতিদিন গ্যাস সাশ্রয় হবে ১০ কোটি ঘনফুট। এই কাজেও ব্যয় সামান্য। বর্তমানে প্রতিদিন দেশে উৎপাদিত মোট গ্যাসের ১২ শতাংশ (২৭ কোটি ঘনফুট) ব্যবহ্নত হচ্ছে আবাসিক খাতে। আর শুধু তিতাসের এলাকায় প্রতিদিন ২৫ কোটি ঘনফুট গ্যাসের অপচয় হচ্ছে। সুতরাং শুধু তিতাসের এলাকার অপচয় বন্ধ করা গেলে সারা দেশে বর্তমানে যতজন আবাসিক গ্রাহক আছেন, আরো প্রায় ততজনকে সংযোগ দেওয়া সম্ভব।
দেশে এখন অনেক শিল্পপ্রতিষ্ঠান গ্যাসনির্ভর। গ্যাসের সুনিশ্চিত সরবরাহের অভাবে দেশে চাহিদামতো বিনিয়োগ হচ্ছে না। অপচয় কমিয়ে গ্যাসের সংকট অনেকখানি মোকাবিলা করা সম্ভব। সার কারখানাগুলোতে উৎপাদনের সঙ্গে মিল রেখে গ্যাস সরবরাহ করা উচিত। মানুষ গৃহস্থালির অতিপ্রয়োজনীয় কাজেও ঠিকভাবে গ্যাস সরবরাহ পাচ্ছে না। আমাদের অপচয়ের পরিমাণ এত বিশাল, যা কল্পনাতীত। এ অপচয় রোধের দায়িত্ব কার?
বলাবাহুল্য এক্ষেত্রে রাষ্ট্র বা সরকার তার দায়িত্ব পালন করছেনা বরং যা করার কথা নয়, তাই তারা করছে। জানা গেছে, তিতাসের কূপ খননে ত্রুটি বা গাফিলতির কারণে অতিরিক্ত পানি উৎপাদনে বাড়তি যে অর্থ ব্যয় হয়েছে তার দায় রাষ্ট্রকেই নিতে হচ্ছে। আর আর্থিকভাবে লাভবান হচ্ছে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান। কূপ উন্নয়নে গ্যাসের সাথে অতিরিক্ত পানি উৎপাদন হওয়ার কারণে ঠিকাদারকে ১৩৭ কোটি ৯৪ লাখ ৪৭ হাজার টাকা অতিরিক্ত প্রদান করতে হয়েছে সরকারকে। অন্য দিকে নির্ধারিত সময়ে কাজ শেষ না করায় কূপখনন প্রকল্পে ব্যয় ৫৩৫ কোটি ৫০ লাখ টাকা বৃদ্ধি পেয়েছে বলে কমিশন সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা এখানে ঠিকাদারের কোনো গাফিলতি স্বীকার করছে না।
প্রকল্পটি ব্যয় ও সময় বাড়িয়ে দ্বিতীয় দফায় সংশোধনীর প্রস্তাব যাচ্ছে আগামী ইয়াওমুছ ছুলাছা বা মঙ্গলবার জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির সভায় (একনেক)। পরিকল্পনা কমিশনের পর্যালোচনায় বেরিয়ে আসে, তিতাসের ২০ নম্বর কূপ থেকে গ্যাসের সাথে অতিরিক্ত পানি উৎপাদনের কারণে রাশিয়ান ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান গ্যাজপ্রোম ইপি ইন্টারন্যাশনাল ইনভেস্টমেন্ট বিভি রেমিডায়াল কাজ করে। এর জন্য তাকে অতিরিক্ত ১ কোটি ৭৪ লাখ ৬১ হাজার ৩৫৪ দশমকি ৮৫ মার্কিন ডলার পরিশোধ করতে হয়, যা ছিল চুক্তিমূল্যের বাইরে। এর জন্য ডিপিপিতে চুক্তিমূল্য সংশোধন করতে হয়েছে। এবং এ হচ্ছে গ্যাসখাতে হাজারো অপচয়ের আরো একটি উদাহারণ।
প্রসঙ্গত আরো উল্লেখ্য, দেশে গ্যাস ব্যবহারের অর্থনৈতিক কোনো জরিপ নেই। গ্যাস কোন খাতে ব্যবহার করলে অর্থনৈতিকভাবে লাভবান হওয়া যাবে, তার কোনো সমীক্ষাও নেই। বিদ্যুৎ উৎপাদন, আবাসিক প্রয়োজন সিএনজি না শিল্প-কোন খাতে গ্যাস বেশি ব্যবহার উচিত তার কোন নীতি নেই। ফলে ইচ্ছে মতো এর ব্যবহার হচ্ছে। ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার সাথে মজুদ বা চাহিদার কোন সমন্বয় থাকছে না। শুধু উপস্থিত চাহিদা মেটাতেই সব উদ্যোগ। দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা নেই।
যদিও কিছুদিন আগে জ্বালানি বিভাগ থেকে একটি কমিটি করা হয়েছিলো কোন খাতে কত পরিমাণ গ্যাস ব্যবহার করা উচিত তা ঠিক করতে। সেই কমিটি একটি সুপারিশ করেছিল। কিন্তুবাস্তবায়ন করা হয়নি। কমিটির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মোট উৎপাদিত গ্যাসের ৫০ শতাংশ সার ও বিদ্যুতে দিতে হবে। ৫০ শতাংশের ৮০ শতাংশ বিদ্যুৎ এবং বাকি ২০ শতাংশ দিতে বলা হয় সার উৎপাদনে। বাকি ৫০ শতাংশ অন্য গ্রাহকদের। তবে এরমধ্যেও শিল্পকে অগ্রাধিকার দিতে হবে। তারপর অন্য খাত অর্থাৎ আবাসিক, শিল্প, বাণিজ্যিক ও সিএনজি ইত্যাদির কথা বিবেচনা করতে হবে । গ্রাহক বিবেচনায় দাম নির্ধারণ করতে হবে। তাহলে অপচয় কম হবে।
আমরা আশা করবো, অনেক সময় পার হলেও সরকার এখন থেকেই জাতীয় সম্পদ গ্যাসের অপচয় রোধে সবদিক থেকে বিশেষভাবে তৎপর হবে। সাংবিধানিকভাবে স্বীকৃত রাষ্ট্রদ্বীন ইসলামের সরকারের অজানা নয় যে, পবিত্র কুরআন শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ, মুবারক হয়েছে “নিশ্চয়ই অপচয়কারী শয়তানের ভাই।” আর মুসলমান কখনো শয়তানের কাজ তথা অপচয় করতে পারেনা। মুসলমান হিসেবে সরকার বা জনগণ কেউই গ্যাসের অপচয় বরদাশত করতে পারেনা।
বলাবাহুল্য, এসব অনুভূতি জাগরূক ও জোরদারের জন্য প্রয়োজন নেক ছোহবত, নেক সংস্পর্শ তথা রূহানী ফয়েজ-তাওয়াজ্জুহ।
যামানার ইমাম ও মুজতাহিদ, যামানার মুজাদ্দিদ- সাইয়্যিদে মুজাদ্দিদে আ’যম, হযরত ইমামুল উমাম আলাইহিস সালাম উনার নেক ছোহবতেই সে মহান নিয়ামত হাছিল সম্ভব। মহান আল্লাহ পাক তিনি আমাদেরকে তা নছীব করুন। (আমীন)
বিশেষ প্রতিবেদন
ফিরে দেখা ইতিহাস : ঘাতক রাজাকার, আল-বাদর মওদুদী জামাতী, দেওবন্দী খারিজী, ওহাবী সালাফীদের দিনলিপি : ১ আগস্ট, ১৯৭১ ঈসায়ী
৭১-এর কুখ্যাত ঘাতক এবিএম খালেক মজুমদার-৪
নিষিদ্ধদের আশ্রয় এখন ভয়ঙ্কর সন্ত্রাসবাদী সংগঠন আইএসে-১
ভারতের কাছে দেশের স্বার্থ বিলিয়ে দেবার নিকৃষ্টতম উদাহরণ রামপালে কয়লাভিত্তিক তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র।
আইন ভেঙ্গে, সংবিধান ভেঙ্গে জনগণকে ধোঁকা দিয়ে তৈরি হচ্ছে রামপাল তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র।
মাত্র ১৫ ভাগ বিনিয়োগ করে ভারত মালিকানা পাবে ৫০ ভাগ।
আর ধ্বংস হবে এদেশের সুন্দরবন।
সুন্দরবনকে ধ্বংস করার সিদ্ধান্ত থেকে সরকারকে সরে আসতে হবে। (৩৩)
১৩শ’ মেগাওয়াটের আরও একটি বিদ্যুত কেন্দ্র হচ্ছে রামপালে
দেশের খবর
ছিটমহলের নতুন বাংলাদেশিদের খালেদার অভিনন্দন
শিশু রাজনের পর নির্যাতিত উজ্জল
২১ সালেই মৎস্য স্বয়ংসম্পূর্ণ বাংলাদেশ
১ মাসে ৫৯ কোটি টাকার মাদক ও চোরাচালান পণ্য উদ্ধার
‘জানুয়ারি থেকে মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা হবে ১০ হাজার টাকা’
ছাত্রলীগের প্রতি আমুর নছিহত!
‘সৃষ্টিকর্তাকে সন্তুষ্ট রেখে রাজনীতি করতে হবে’
অবৈধ টোল বাতিলের দাবি
বুড়িগঙ্গা সেতুতে অটোরিকশা চালকদের অবরোধ
তিতাসের এমডির তথ্য চায় দুদক
শিক্ষার্থীদের বৃষ্টিতে ভিজিয়ে মন্ত্রীকে সংবর্ধনা
সম্ভ্রমহরণ: স্বজনরাই নারী-শিশুর জন্য বেশি ভয়ঙ্কর!
অনুমোদন পাচ্ছে ৭ হাজার ১৩৯ পুলিশ নিয়োগ
বৈদ্যুতিক তারের প্যাঁচে কমিটি, কথা শুনছেন না ব্যবসায়ীরা
মহাসড়কে অটোরিকশা চলাচল বন্ধ:
বগুড়ায় ১মদিনেই চরম দুর্ভোগে যাত্রীরা
মাদকবিরোধী অভিযান:
ট্রলারসহ প্রায় দেড় লাখ বার্মিজ ইয়াবা জব্দ
মুঠোফোনে প্রেমের ফাঁদে অপহরণ,
তরুণীসহ গ্রেফতার ৫
১৯ সালেই মসজিদের সংখ্যা ৪০ লাখে পৌঁছবে
নোয়াখালীতে সৎ মায়ের নির্যাতনে ক্ষতবিক্ষত ৫ বছরের শিশু শাকিব
স্থল নিম্নচাপ ক্রমান্বয়ে দুর্বল হচ্ছে : খুলনা ও সংলগ্ন এলাকায় বৃষ্টি ঝরাবে
মানবতাবিরোধী অপরাধের আরো ৮টি আপিল মামলা শুনানির অপেক্ষায়
প্রবল বর্ষনে দেশের বিভিন্নস্থানে পানিবন্দি বহু মানুষ:
তালায় ৫৫ গ্রাম প্লাবিত, পানিবন্দি হাজারো মানুষ
সড়ক দুর্ঘটনা:
কুমিল্লায় দুই বাসের সংঘর্ষে নিহত ৩
ইষ্টার্ন রিফাইনারির দ্বিতীয় ইউনিট হচ্ছে
১ মাসে ৫৯ কোটি টাকার মাদক ও চোরাচালান পণ্য উদ্ধার
‘জানুয়ারি থেকে মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা হবে ১০ হাজার টাকা’
অনুমোদন পাচ্ছে ৭ হাজার ১৩৯ পুলিশ নিয়োগ
মহাসড়কে অটোরিকশা চলাচল বন্ধ:
বগুড়ায় ১মদিনেই চরম দুর্ভোগে যাত্রীরা
১৫ আগস্ট হামলা পুরো জাতির ওপর আঘাত -প্রধানমন্ত্রী
মুন্সীগঞ্জে পদ্মায় বালুবাহী দুটি ট্রলার ডুবে নিখোঁজ ৩৪
বঙ্গবন্ধু হত্যার প্রথম প্রতিবাদকারীরা এখন আওয়ামী লীগে নেই
এবার বর্জন করলে বিএনপির অস্তিত্ব থাকবে না - আশরাফ
১৫ আগস্ট কেক না কাটার আহ্বান নাজমুল হুদার
‘মায়ের পেটের শিশুও নিরাপদ নয়’
নেপালে পাচারের সময় ১১ যুবক উদ্ধার
রিমাণ্ডে যুবলীগ নেতার স্বীকারোক্তি :
অস্ত্রগুলিসহ সহযোগী গ্রেফতার
মহাসড়কে অটোরিকশা বন্ধের প্রতিবাদে অবরোধ
মহাসড়কে অটো চলাচলে কঠোর সরকার
তিস্তার বিনিময়ে মুস্তাফিজকে চায় ভারত, প্রধানমন্ত্রীর সরাসরি না : জানালেন তথ্যমন্ত্রী
দহগ্রাম-আঙ্গরপোতা থাকছে বাংলাদেশেরই
Anjuman-e Al Baiyinaat, Sweden
কবিতা






For the satisfaction of Mamduh Hazrat Murshid Qeebla Alaihis Salam
Site designed & developed by Muhammad Shohel Iqbal