অনুগ্রহ করে অপেক্ষা করুন...
 

যামানার লক্ষ্যস্থল ওলীআল্লাহ, যামানার ইমাম ও মুজতাহিদ, ইমামুল আ’ইম্মাহ, মুহইস সুন্নাহ, ক্বাইয়্যুমুয্ যামান, কুতুবুল আলম, হুজ্জাতুল ইসলাম, সুলত্বানুল আউলিয়া ওয়াল মাশায়িখ, ছাহিবু সুলত্বানিন নাছীর,
মাহিউল বিদয়াহ, রসূলে নুমা, গাউছুল আ’যম, সাইয়্যিদুল আউলিয়া, ইমামুল উমাম, সাইয়্যিদুল খুলাফা, আস সাফফাহ, হাবীবুল্লাহ্, আওলাদে রসূল, রাজারবাগ শরীফ-এর মুর্শিদ ক্বিবলাহ
The Daily Al Ihsan
বিশ্বের সমস্ত দেশ থেকে পঠিত আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত এর
আক্বীদায় প্রতিষ্ঠিত একমাত্র আন্তর্জাতিক ইসলামী পত্রিকা
Arabic .  বাংলা .  Urdu .  English .  Japanese .  Swedish
২১ মাহে যিলক্বদ, ১৪৩৫ হিজরী, ১৯ রবি’, ১৩৮২ শামসি
১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৪ ঈসায়ী সন, ২ আশ্বিন, ১৪২১ ফসলী সন
ইয়াওমুল আরবিয়ায়ি (বুধবার)
al-ihsan al-ihsan al-ihsan
al-ihsan
মুজাদ্দিদে আ’যম আলাইহিস সালাম উনার দোয়ার বরকতে মুসলমানদেরকে জুলুম নির্যাতন করার ফলে জুলুমবাজ কাফিরদের উপর খোদায়ী গজব
  • <font class='SlideCaptionBN'>মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের উত্তরাঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে স্মরণকালের ভয়াবহ দাবানল, পুড়ে ছাই হচ্ছে হাজার হাজার বাড়িঘর।</font>
  • <font class='SlideCaptionBN'>মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের উত্তরাঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে স্মরণকালের ভয়াবহ দাবানল, পুড়ে ছাই হচ্ছে হাজার হাজার বাড়িঘর।</font>
  • <font class='SlideCaptionBN'>মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের উত্তরাঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে স্মরণকালের ভয়াবহ দাবানল, পুড়ে ছাই হচ্ছে হাজার হাজার বাড়িঘর।</font>
  • <font class='SlideCaptionBN'>মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের উত্তরাঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে স্মরণকালের ভয়াবহ দাবানল, পুড়ে ছাই হচ্ছে হাজার হাজার বাড়িঘর।</font>
  • <font class='SlideCaptionBN'>মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের উত্তরাঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে স্মরণকালের ভয়াবহ দাবানল, পুড়ে ছাই হচ্ছে হাজার হাজার বাড়িঘর।</font>
Al Baiyinaat : e Version Al Ihsan : e Version
সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ উপলক্ষে প্রকাশিত
পোষ্টার, স্ক্রিনসেভার, ওয়ালপেপার সমুহ ডাউনলোড করুন।
বিশ্বের সমস্ত দেশ ও শহর থেকে পঠিত
ইসলামী শরীয়ত সম্মত একমাত্র পত্রিকা
"দৈনিক আল ইহসান"

বিজ্ঞাপনের মুল্য তালিকা
নামাজের সময়সূচী
জেলা : ঢাকা ও পার্শ্ববর্তী এলাকা
ওয়াক্তশুরুশেষ
সাহ্‌রীর শেষ সময়০৪:২৬
ফজর০৪:৩১০৫:৪৩
ইশরাক০৬:০৭০৭:২৬
চাশত্‌০৭:২৭১০:৫৩
জাওয়াল১১:৫৪যোহর নামায পড়ার পূর্ব পর্যন্ত
যোহর১১:৫৪০৪:১৮
আছর০৪:১৯০৫:৪৩
মাগরিব০৬:০৬০৭:১৬
আওয়াবীনবাদ মাগরিব০৭:১৬
ইশা০৭:১৭০৪:২৬
তাহাজ্জুদ১১:১৬০৪:২৬
আগামীকাল ফজর০৪:৩১০৫:৪৪
আগামীকাল সূর্যোদয়০৫:৪৫-
আজ সূর্যোদয়০৫:৪৪-
আজ সূর্যাস্ত০৬:০১-
সূত্র: গবেষণা কেন্দ্র- মুহম্মদিয়া জামিয়া শরীফ, ঢাকা

 
Saieedul Aaiyad
Saieedul Aaiyad
Saieedul Aaiyad
RajarbagShareef.net
Radio 'Al-Hikmah'
Special Days in Islam
majlisu-ruiatil-hilal
International Voice Room
Noorun Alaa Noor
Donate for Daily Al Ihsan Shareef Donate for Daily Al Ihsan Shareef


» কোরআন শরীফের তরজমা ও তাফছির(তরজমায়ে মুজাদ্দিদে আজম)
» ফিক্বহুল হাদিস ওয়াল আছার
» আহ্‌লে সুন্নাত ওয়াল জামাতের আক্বীদা
» মারিফাতুছ ছাহাবা রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম
» আউলীয়া-ই-কিরাম রহমতুল্লাহী আলাইহিম
 
» আত-তাক্বউইমুশ শামসি
» ইসলামের বিশেষ দিন সমূহ
» আহ্‌কামু রমাদ্বানাল মুবারক
» আহ্‌কামুয্‌যাকাত
(যাকাতের হুকুম-আহ্‌কাম)
» বিষয় ভিত্তিক বিশেষ প্রবন্ধ
 
» মাসিক আল বাইয়্যিনাত
» ওয়াজ শরীফ
» ক্বাছীদা আনজুমান
» মক্ববুল মুনাজাত শরীফ
» প্রকাশিত কিতাব সমূহ
 
» ফতওয়া বিভাগ
» সুওয়াল জাওয়াব বিভাগ
» মাসের ফজিলত ও প্রাসঙ্গিক আলোচনা
 
» পত্রিকার মূল সংস্করণ
 
» আপনার মতামত পাঠান
» আর্কাইভ থেকে পড়ুন
 
» সুন্নতি সামগ্রী
» কবিতা
» সবুজ বাংলা ব্লগ

 
মুজাদ্দিদে আ’যম হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম-উনার ক্বওল শরীফ
মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘তিনি অতীতের পবিত্র ওহী মুবারক দ্বারা নাযিলকৃত সম্মানিত দ্বীন এবং অতীত, বর্তমান ও ভবিষ্যৎ অর্থাৎ সর্বকালের সমস্ত মানবরচিত মতবাদ রদ করে অর্থাৎ বাতিল ঘোষণা করে, মহাসম্মানিত সত্যদ্বীন ও মহাসম্মানিত হিদায়েত দিয়ে উনার মহাসম্মানিত রসূল ও হাবীব, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে পাঠিয়েছেন। এ বিষয় সাক্ষী হিসেবে মহান আল্লাহ পাক তিনিই যথেষ্ট।’
কাজেই পৃথিবীর কোনো সরকার, তা রাজতান্ত্রিক হোক অথবা সমাজতান্ত্রিক বা গণতান্ত্রিকই হোক অথবা নাস্তিক্যবাদী হোক অথবা অন্য কোনো মতবাদই হোক না কেন-
তাদের কাউকে কোনো ক্ষমতা দেয়া হয় নাই যে, তারা সম্মানিত শরীয়ত উনার উপর হস্তক্ষেপ করে। অতএব, বাংলাদেশ সরকারের জন্যও জায়িয হবে না, মহাসম্মানিত সুন্নত অর্থাৎ বাল্যবিবাহের ব্যাপারে হস্তক্ষেপ করা। স্মরণীয় যে, অতীতে যারা মহান আল্লাহ পাক উনার বিরোধিতা করেছে তারা কিন্তু ধ্বংস হয়ে গিয়েছে, বর্তমানে যারা বিরোধিতা করছে তারাও কিন্তু ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে এবং ভবিষ্যতে যারা বিরোধিতা করবে তারাও কিন্তু ধ্বংস হয়ে যাবে। মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘এদের জন্য কঠিন আযাব রয়েছে এবং এরা কোনো সাহায্যকারী পাবে না।’
আপনাদের মতামত
মুজাদ্দিদে আ’যম সাইয়্যিদুনা ইমাম রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার মকবুল মুনাজাত শরীফ উনার বেমেছাল রূহানীয়ত সমৃদ্ধ রোব মুবারক উনার ফলেই খোদায়ী গযবে পর্যুদস্ত বিশ্বের সকল কাফির-মুশরিকদের দেশ
বাংলাদেশের পার্বত্য অঞ্চলে হিংস্রা নেকড়ের থাবা
নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মহাসম্মানিত রওযা শরীফ স্থানান্তরের পরিকল্পনা করছে মুনাফিক ইহুদী সউদী সরকার! নাউযুবিল্লাহ!
প্রসঙ্গ : বাল্যবিবাহ খাছ সুন্নত।
এর বিরুদ্ধে যারা বলবে, আইন পাস করবে, আইন পাস করার কাজে সাহায্য-সহযোগিতা করবে তারা সম্মানিত ইসলামী শরীয়ত উনার দৃষ্টিতে কাট্টা কাফির হবে।
সম্পাদকীয়
সব প্রশংসা মহান আল্লাহ পাক উনার জন্য। সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার প্রতি অফুরন্ত দুরূদ শরীফ ও সালাম মুবারক।
কুচক্রী ড. ইউনূস তার নোবেল প্রাপ্তির পর থেকে চট্টগ্রামে সমুদ্রবন্দর নির্মাণের উপর গুরুত্ব আরোপ করে আসছে। সে চট্টগ্রাম ও দেশের বিভিন্ন স্থানে বক্তব্যে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ত্বরান্বিত করার মুলো দেখিয়ে চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দরের সম্ভাব্য ভূমিকার রূপরেখা তুলে ধরেছিল এবং এমন আশাও ব্যক্ত করেছিল যে- সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনার মাধ্যমে আমরা নিজেরাই এই মহাপরিকল্পনার জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ সংস্থান করতে সক্ষম। বলার অপেক্ষা রাখে না যে, ড. ইউনূসের মতো একজন কুখ্যাত সাম্রাজ্যবাদী এজেন্টের দ্বারা গভীর সমুদ্রবন্দর স্থাপনের উদ্দেশ্যে আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রকারী মহলের বিশেষ প্রচারণার পেছনে ও স্বার্থ নিহিত আছে। বলাবাহুল্য, ড. ইউনূসের সাথে বর্তমান সরকারের বৈরীতা থাকলেও আন্তর্জাতিক মহলের স্বার্থ বাস্তবায়নে দু’পক্ষই একই পথের পথিক।
যত বাধাই আসুক, বাংলাদেশে গভীর সমুদ্রবন্দর স্থাপনে সরকার পিছপা হবে না বলে সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।
আত্মপ্রচারণা চালানো হচ্ছে, চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দরের অবকাঠামোগত অসুবিধার কারণে বড় জাহাজ সেখানে ভিড়তে পারে না। কিন্তু সোনাদিয়ায় গভীর সমুদ্রবন্দর হলে মাদার ভেসেলগুলো সেখানে নোঙ্গর করতে পারবে। ফলে পণ্য আমদানি-রফতানির খরচ কমে আসবে, সময়ও বাঁচবে। এছাড়া চীনের কুনমিং, মিয়ানমার, নেপাল ও ভুটানও এ বন্দর ব্যবহার করতে পারবে।
তাই দেশবাসীর প্রচ- বিরোধিতা সত্ত্বেও চট্টগ্রামে গভীর সমুদ্রবন্দরের পরিকল্পনা বাস্তবায়নের উদ্দেশ্যে ২০১২ সালের ২ জানুয়ারি জাতীয় সংসদে গভীর সমুদ্রবন্দর আইন পাস করা হয়।
ইতোমধ্যে চট্টগ্রামের মহেশখালীর সোনাদিয়া দ্বীপে দেশের প্রথম গভীর সমুদ্রবন্দর স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার।
তিন পর্বে এ বন্দর স্থাপনে প্রায় ৬০ হাজার কোটি টাকা ব্যয় হবে বলে প্রাথমিকভাবে ধরা হয়েছে। তবে ভবিষ্যতে প্রকল্প ব্যয় আরো বাড়ানোর ধারণাও দেয়া হয়েছে।
প্রাথমিকভাবে প্রকল্পটি বাস্তবায়নে জাপান আন্তর্জাতিক সহযোগিতা সংস্থা (জাইকা), এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) এবং চীন সরকার আর্থিক সহায়তা দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।
মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, ২০২০ সালের মধ্যে সোনাদিয়ায় গভীর সমুদ্রবন্দর নির্মাণের প্রথম পর্ব শেষ করার লক্ষ্য ধরা হয়েছে। এজন্য ব্যয় হবে প্রায় ১৩ হাজার কোটি টাকা। এতে পাঁচটি আন্তর্জাতিক মানের সাধারণ জেটি নির্মিত হবে। জেটিগুলোর মাধ্যমে বছরে সাত কোটি ৪১ লাখ টন কন্টেইনার উঠা-নামার কাজ করা সম্ভব হবে।
পরবর্তীতে ২০৩৫ সালের মধ্যে দ্বিতীয় পর্যায়ের কাজ এবং ২০৫৫ সালের মধ্যে তৃতীয় পর্যায়ের কাজ শেষ করা হবে।
গভীর সমুদ্রবন্দরের সঙ্গে উন্নতমানের যোগাযোগ ব্যবস্থা গড়ে তুলতে ৪০ কিলোমিটার সড়ক নির্মাণ এবং ৪০ কিলোমিটার রেললাইন স্থাপন করা হবে। যা চট্টগ্রামের মূল নেটওয়ার্কের সঙ্গে এ বন্দরকে যুক্ত করবে।
উল্লেখ্য, এসব প্রচারণার পাশাপাশি সোনাদিয়ায় গভীর সমুদ্রবন্দর স্থাপন প্রক্রিয়া নিয়ে চলছে এক ধরনের লুকোচুরি। অনেকটা গোপনীয়তা রক্ষা করে গভীর সমুদ্রবন্দর স্থাপন প্রক্রিয়ার কাজ চলছে!
এক্ষেত্রে বলতে হয়, মূলতঃ গভীর সমুদ্রবন্দর স্থাপনের পেছনে লুকায়িত রয়েছে আন্তর্জাতিক বলয় নিয়ন্ত্রণকারীদের প্রত্যেকের আলাদা স্বার্থ। পুরো দক্ষিণ এশিয়ায় চীনের প্রভাববলয় বিস্তৃত হওয়া নিয়ে কৌশলগত কারণে ভারত ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অস্বস্তি আছে। সামরিক ও নিরাপত্তাগত কারণে চীন ও ভারত উভয়েই বঙ্গোপসাগরের নিয়ন্ত্রণ চায়। এবং সে উদ্দেশ্যেই বঙ্গোপসাগরে গভীর সমুদ্রবন্দর স্থাপনে নিজেদের জড়িত করতে চায়।
বলাবাহুল্য, এ অঞ্চলের সাগর-মহাসাগরে প্রভাব বিস্তারে চীন ও ভারতের নৌবাহিনীর প্রতিযোগিতা বেশ পুরোনো। আবার এ অঞ্চলে চীনের নৌশক্তি বৃদ্ধি ঘটুক, তা যুক্তরাষ্ট্রের পছন্দ নয়। সেক্ষেত্রে গভীর সমুদ্রবন্দর চীনকে নির্মাণ করতে দিলে যুক্তরাষ্ট্র বাধা দিতে পারে। এক্ষেত্রে বর্তমান মুহূর্তে বর্তমান সরকারের জন্য তা হবে খাল কেটে কুমির আনার শামিল।
উল্লেখ্য, কিছুদিন পূর্বে কথিত বিশ্ববিখ্যাত ফরেন পলিসি ম্যাগাজিন বাংলাদেশকে ২৫তম ব্যর্থ রাষ্ট্র বলার পেছনে প্রধান কারণ উল্লেখ করেছে এদেশের প্রতি ৫ জনের ২ জনই দারিদ্র্যসীমার নিচে বাস করে। সেক্ষেত্রে বলতে হয়, সোনাদিয়া গভীর সমুদ্রবন্দর করার চেয়ে ঐ টাকা দিয়ে দেশের দারিদ্র্যই আগে দূর করা বেশি দরকার। আর গভীর সমুদ্রবন্দর যদি দরকারই হয়, তবে এ মুহূর্তে শ্রীলঙ্কার গভীর সমুদ্রবন্দর হ্যাম্বান টোটা ব্যবহারেই আগ্রহী হতে পারে বাংলাদেশ। শ্রীলঙ্কার আরো একটি বন্দর কলম্বোও ‘স্থানীয় জাহাজের সম-সুযোগে’ ব্যবহার করতে পারবে বাংলাদেশের পতাকাবাহী জাহাজ। এ লক্ষ্যে উভয় দেশের মধ্যে একটি চুক্তিও আছে। ১৯৭৯ সালের ৭ নভেম্বর শ্রীলঙ্কার সঙ্গে বাংলাদেশের জাহাজবিষয়ক একটি চুক্তি সম্পাদিত হয়েছিল। চুক্তিটি বলবৎ থাকলেও খুব একটা কার্যকর ছিল না। প্রায় ৩২ বছর আগে সম্পাদিত চুক্তির প্রেক্ষাপটও বদলে গেছে। এ কারণে নতুন একটি চুক্তি তৈরি হয়েছে। প্রসঙ্গত, চলতি ২০১৪ সালের শুরুতে এ চুক্তি সইয়ের ব্যাপারে শ্রীলঙ্কান সরকার বাংলাদেশের কাছে তাদের আগ্রহের কথা জানায়। কিন্তু তারপরেও সে চুক্তিটি না করা রহস্যজনক। মূলত, তা সোনাদিয়া গভীর সমুদ্রবন্দরের নামে লুটতরাজের মচ্ছব চালানোর জন্যই উদ্দেশ্যমূলকভাবে বিরত রাখা হচ্ছে।
উল্লেখ্য, গভীর সমুদ্রবন্দর নিয়ে নিজ দেশের মালিকানা সম্পূর্ণভাবে সংরক্ষিত না রাখাও উদ্বেগজনক। এক্ষেত্রে চুক্তির শর্ত জনসম্মুখে প্রকাশ করতে হবে, যাতে মালিকানা স্বত্ব নিয়ে কোনো বিরোধ সৃষ্টি না হয়। আর যারা অর্থ দিয়ে এই বন্দর নির্মাণ করবে তাদের স্বার্থ রক্ষা করতে গিয়ে যেন দেশের সার্বভৌমত্ব নষ্ট না হয়, সেদিকেও নজর দেয়ার বিষয় রয়েছে।
এদিকে আমেরিকা বাংলাদেশের গভীর সমুদ্রবন্দর ব্যবহার করার জন্য দীর্ঘদিন ধরে চেষ্টা তদ্বির করে আসছে। তবে অর্থনৈতিক উন্নয়নশীল রাষ্ট্র চীন বাংলাদেশের জন্য কোনো হুমকির কারণ হবে না- এমন আশা যারা করে সেক্ষেত্রেও নজরদারী ঠিক রাখার প্রয়োজন রয়েছে। সবার জন্য বন্দর উন্মুক্ত করার প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা প্রসঙ্গে বলতে হয়, ব্যবহারের জন্য সবাইকে উন্মুক্ত করে দেয়ায় এর নিয়ন্ত্রণ নিয়ে কেউ যেন একচ্ছত্র আধিপত্য বিস্তার করতে না পারে সে বিষয়টি অবশ্যই নজরে রাখতে হবে। কিন্তু নতজানু পররাষ্ট্রনীতির দেশে বাংলাদেশের জন্য তা রাখা সম্ভব হবে কী?
মূলত, এসব সমস্যা সমাধানের দায়িত্ববোধ ও জাতীয়স্বার্থ রক্ষা করে সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণের চেতনা আসে ইসলামী অনুভূতি ও প্রজ্ঞা থেকে। আর তার জন্য চাই নেক ছোহবত তথা ফয়েজ তাওয়াজ্জুহ। যামানার ইমাম ও মুজতাহিদ, যামানার মুজাদ্দিদ, মুজাদ্দিদে আ’যম আলাইহিস সালাম উনার নেক ছোহবতেই সে মহান ও অমূল্য নিয়ামত হাছিল সম্ভব। মহান আল্লাহ পাক তিনি আমাদেরকে তা নছীব করুন। (আমীন)
দেশের খবর
ওহাবী মুফতে জসীমসহ ১০ সন্ত্রাসবাদীর বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র
বিএসএফের নির্যাতনে নিহত আরো এক বাংলাদেশীর লাশ উদ্ধার
আইনজীবীরাই কর ফাঁকি দেয়ার রাস্তা দেখিয়ে দেন - বিকেএমইএ সভাপতি
আরেক হিন্দু লম্পট পরিমল গ্রেফতার
‘পাহাড়ে ভূমি সমস্যার সমাধান সম্ভব’
একনেকে ৪ হাজার ২৯৬ কোটি টাকার ৬টি প্রকল্প অনুমোদন
অক্টোবরে ইতালি যাচ্ছে প্রধানমন্ত্রী
শিগগিরই এনার্জি কাউন্সিল আইন
ভারতে বাংলাদেশী সন্ত্রাসীদের সৌখিন জীবনযাপন
এমপিদের বেতনের টাকায় হাসপাতাল নির্মাণের আহ্বান নাসিমের
সাড়ে ৪ হাজার বোতল ভারতীয় ফেনসিডিল আটক
কলকাতার ‘দৈনিক বর্তমান’-এর প্রতিবেদন:
সারদার টাকা এসেছে তৃণমূল নেতার ভাইয়ের সহায়তায়
ভারতে পাচারকালে ২ কেজি স্বর্ণসহ পাচারকারী আটক
মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভার:
শুধু দিনেই না, রাতেও যানজট
সংসদে মন্ত্রী:
মিঠাপানিতে ২৬০ প্রজাতির মাছ ও ২৪ প্রজাতির চিংড়ি রয়েছে
লালমনিরহাটে ধরলা নদীর ডান তীরে তীব্র নদী ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে
গাজীপুরে দুটি পোশাক কারখানা পরিদর্শন করলো ড্যান মজীনা
বাংলার ইহুদী খ্যাত মালানা সাঈদী ওরফে দেইল্যা রাজকারের চূড়ান্ত রায় আজ
দেশের বিভিন্ন স্থানে মাঝারি ধরনের ভারী বর্ষণ হতে পারে
সাঈদীর রায়:
মওদুদীবাদী জামাতের নাশকতা ঠেকাতে রাজধানীজুড়ে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা
বিচারক অপসারণ ক্ষমতা সংসদে
আজ পাস হচ্ছে সংবিধান সংশোধন বিল
তথ্য প্রযুক্তি খাতকে শিল্প স্বীকৃতির কথা ভাবছে সরকার -আমু
সাঈদীর চূড়ান্ত রায়:
‘ফাঁসি বহাল থাকলে সর্বোচ্চ প্রতিক্রিয়া দেখাবে জামাত’
মমতাকে উপেক্ষা করেই হতে পারে তিস্তা চুক্তি
রেল লাইনের পাশের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ
ট্যানারি স্থানান্তর নিয়ে উদ্বিগ্ন অসংখ্য শ্রমজীবি মানুষ
খালেদার রাজনীতিতে মহাজোট উদ্বিগ্ন -ইনু
৯ মাসে ১৩৮ জন কর্মকর্তাকে ওএসডি
বিদ্যুৎ উৎপাদনের নামে দুর্নীতির রেকর্ড গড়েছে সরকার -আমীর খসরু
ঝিনাইদহে বন্দুকযুদ্ধে ডাকাত নিহত, অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার, দুই পুলিশ আহত
সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি
প্রধানমন্ত্রী বাঘের পিঠে, নামার পথ পাচ্ছে না -এমকে আনোয়ার
৫ মাসে ২২৬ কোটি টাকার চোরাচালান পণ্য জব্দ
৪ মামলায় আসামি দেড় শতাধিক ॥ গ্রেপ্তার ৪২
চবিতে পুলিশি অভিযানে পিছু হটেছে
শিবির ॥ মুখ থুবড়ে পড়ছে আন্দোলন
আজ চীন সফরে যাচ্ছে বিএনপির প্রতিনিধি দল
চবির রব হল থেকে ১৮টি পেট্রোল বোমা উদ্ধার
Anjuman-e Al Baiyinaat, Sweden






For the satisfaction of Mamduh Hazrat Murshid Qeebla Alaihis Salam
Site designed & developed by Muhammad Shohel Iqbal